চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অন্য রাজ্যের শ্রমিক আটকাতে ভারতে কড়া পদক্ষেপ

করোনায় লকডাউন ঘোষণার পরপর নিজ নিজ রাজ্য ফিরতে থাকা শ্রমিকদের আটকাতে রাজ্যের সীমানাগুলো বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

সেই সঙ্গে শ্রমিকদের যাবতীয় সহযোগিতার মাধ্যমে লকডাউন নিশ্চিত করারও কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

রাজ্য সরকারেগুলোর কাছে কেন্দ্র থেকে পাঠানো নির্দেশে বলা হয়েছে,, যে শ্রমিক, যেখানে আটকে যাবে তাকে সেখানেই থাকার ব্যবস্থা করে দিন। খাওয়ার-পানি ও অর্থ দিয়ে সাহায্য করুন। রাজ্যগুলোর সে সক্ষমতা আছে।

বিজ্ঞাপন

রোববার এমন নির্দেশনা দিয়েছে ভারত সরকার।

এনডিটিভি বলছে, মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে দেশব্যাপী ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই দলে দলে শ্রমিকরা নিজের রাজ্যে ফিরতে পথে নেমেছে।

বিজ্ঞাপন

শ্রমিকদের অভিযোগ, যেহেতু কাজ বন্ধ। তাই তাদের দায় নিচ্ছে না মালিকপক্ষ। কোনো কোনো জায়গায় আবার বাড়ি ছাড়তে বলা হয়েছে শ্রমিকদের। এমন পরিস্থিতিতে বাধ্য হয়ে পরিবার নিয়ে গ্রামে ফেরাটাই একমাত্র পথ হয়ে দাঁড়ায় শ্রমিকদের। ফলে দেশের বিভিন্ন শহরের বাস স্ট্যান্ডে উপচে পড়ছে ভিড়। গাদাগাদি হয়ে বাসে যাত্রা শুরু করে শ্রমিকরা।

শনিবার দিল্লির আনন্দবিহার বাস টার্মিনালের চিত্র ছিল শিহরিত হওয়ার মতো। বিঘ্নিত হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি এবং মারাত্মক করোনা ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যাচ্ছে শ্রমিকরা।

এমতাবস্থায় কড়া নির্দেশে রাজ্য সরকারগুলোকে তাদের যাবতীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়।

নির্দেশে বলা হয়, প্রয়োজনে যে মালিক শ্রমিকের দায়িত্ব নিচ্ছেন না, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। ব্যবস্থা নিতে হবে সেই সব বাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে, যারা ভাড়াটিয়াদের ঘর ছাড়তে করছে।

মহামারী করোনা ভাইরাস ভারতেও ছড়িয়ে পড়েছে। দেশটিতে এখন পযন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৯৮৭ জন আর মারা গেছে ২৫ জন।