চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘অগ্রহায়ণের মেঘ’ নিয়ে চয়নিকার মুগ্ধতা

ঈদে চয়নিকার এক টেলিফিল্ম ও দুই নাটক:

ঈদ উপলক্ষ্যে সর্বাধিক নাটক নির্মাণ করে বিগত বছরগুলোতে বেশ কয়েকবার আলোচিত হয়েছেন নাট্য নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী। অথচ ঈদুল আযহায় মাত্র একটি টেলিফিল্ম ও দুটি নাটক নির্মাণ করেছেন দাপুটে এই নির্মাতা।

ঈদের জন্য টানা কয়েকবার সর্বাধিক নাটক-টেলিফিল্ম নির্মাণের রেকর্ড গড়েছেন, অথচ এবার সংখ্যায় মাত্র তিনটি কাজ, কেন?-জানতে চাইলে চারশোর বেশি নাটক নির্মাণ করা এই নাট্য নির্মাতা জানান, হ্যাঁ, স্মরণকালে ঈদকে কেন্দ্র করে গেল রোজার ঈদ ও ঈদুল আযহাতে সবচেয়ে কম কাজ করলাম। আসলে বর্তমানে আমি আমার প্রথম ছবি ‘বিশ্ব সুন্দরী’র কাজে মগ্ন। রোযার ঈদে কাজ করতে পারিনি কারণ তখন সিনেমার চিত্রনাট্য থেকে শুরু করে ছবির প্রি-প্রোডাকশনের কাজ নিয়ে খুব ব্যস্ত ছিলাম। আর এই ঈদের সামনে ছবির শুটিং নিয়ে দারুণ ব্যস্ততার মধ্যে দিয়ে গিয়েছি।

বিজ্ঞাপন

তবে এবারের ঈদে কম কাজ করলেও সবগুলো কাজ নিয়েই বেশ উচ্ছ্বসিত এই নির্মাতা। বিশেষ করে একমাত্র টেলিফিল্ম ‘অগ্রহায়ণের মেঘ’ নিয়ে একটু বেশীই আশাবাদী চয়নিকা।

টেলিফিল্মটি নিয়ে চয়নিকা বললেন, পরিণত বয়সী দুজন মানুষের ভালোবাসা আর সম্পর্কের গল্পে নির্মিত এই ‘অগ্রহায়ণের মেঘ’। এতে অভিনয় করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, তৌকীর আহমেদ ও জাকিয়া বারী মমের মতো অভিনেতা। দর্শক যদি একবার রিমোট ঘুরিয়ে এই টেলিফিল্মটি দেখতে বসেন, আমি কথা দিচ্ছি এক মুহূর্তের জন্য ও এই চ্যানেল আর বদল করবেন না! এমন অসাধারণ গল্পের জন্য মাসুম শাহরিয়ারকে ধন্যবাদ।

ব্ল্যাক এন্ড হোয়াইট প্রযোজিত ‘অগ্রহায়ণের মেঘ’ টেলিফিল্মটির জন্য চয়নিকা বিশেষ ধন্যবাদ জানান এর প্রযোজক কাজী রিটন ও বন্ধু শরীফা নাজনীনকে। তিনি বলেন, তাদের কাছে আমার অনেক কৃতজ্ঞতা। তারা না থাকলে এমন অসাধারণ একটি টেলিফিল্ম নির্মাণ ই হতো না।

নির্মাতা বলেন, ‘অগ্রহায়ণের মেঘ’ টেলিফিল্মটি ঈদের দিন গাজী টিভিতে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় প্রচার হবে। এছাড়াও এই ঈদে ‘তমোহর’ ও ‘হৃদমাঝারে’ নামের তুটি নাটক প্রচার হবে দুটি বেসরকারি টেলিভিশনে।

Bellow Post-Green View