চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অগ্নিকাণ্ডের পর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে রোহিঙ্গারা

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের পর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে রোহিঙ্গারা। ধ্বংসস্তুপে নিজেদের পুড়ে যাওয়া বসতবাড়ির খোঁজে রোহিঙ্গারা।

এরই মধ্যে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় অগ্নিকাণ্ডে সর্বস্ব হারানো রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে বিভিন্ন সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। মন্ত্রণালয় ১০ লাখ টাকা ও ৫০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে। রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ৮০০ তাঁবু দিয়ে অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছে। আন্তর্জাতিক সংস্থা আইওএম রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসন কার্যক্রমে অংশ নিচ্ছে। তারা রোহিঙ্গাদের ঘর নির্মাণে উপকরণ দিচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সরকারের পক্ষ থেকে এবং বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার সহযোগিতায় এ ব্যবস্থার পাশাপাশি বসতহারা রোহিঙ্গাদের মধ্যে শুকনো ও রান্না করা খাবার বিতরণ করা হচ্ছে। সরকারের বিভিন্ন দপ্তর এবং বেসরকারি সংস্থাগুলোর প্রচেষ্টায় বিধ্বস্ত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চলছে ঘুরে দাঁড়ানোর যুদ্ধ। তবে এখনো অনেকে খোলা আকাশের নিচে রয়েছে।

সরকারি হিসেবে অগ্নিকাণ্ডে ৫টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ৯ হাজার ৩০০ বসত ঘর পুড়ে গেছে। ৪৫ হাজার রোহিঙ্গা বাস্তুচ্যুত হয়। অগ্নিকাণ্ডে ১১ জনের মৃত্যু হয় বলে নিশ্চিত করেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। তবে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করা আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর হিসেব মতে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতির পরিমাণ আরো বেশি।

অগ্নিকাণ্ডে এক লাখ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং ৬০ হাজার রোহিঙ্গা সর্বস্ব হারিয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি।