চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বরযাত্রীর বাসচাপায় এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ দু’জন নিহত

Fresh Add Mobile
বিজ্ঞাপন

বরযাত্রীর বাসের সঙ্গে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে জহুরুল ইসলাম (৪০) নামে দিনাজপুরে এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ দু’জন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার ৩ অক্টোবর রাত আনুমানিক সাড়ে ৮ টায় দিনাজপুরের বিরামপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের বিরামপুর উপজেলার কলেজ বাজার পেট্রোল পাম্প সংলগ্ন চাঁদপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘাতক বাসটি জব্দ করা হয়েছে।

নিহত অপর ব্যক্তি সুজন হোসেন (৪০)।

জহুরুল ইসলাম দিনাজপুর ফুলবাড়ী উপজেলার লক্ষ্মীপুর এলাকার আফফার উদ্দিনের ছেলে এবং সুজন হোসেন একই উপজেলার খয়েরবাড়ি ইউনিয়নের হবিবুর রহমানের ছেলে। জহুরুল নীলফামারীর জলঢাকা থানার এসআই (ডিএসবি) হিসেবে এবং সুজন ফুলবাড়ি উপজেলায় ওষুধ কোম্পানির রিপ্রেজেন্টেটিভ হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
Reneta April 2023

স্থানীয়দের বরাতে পুলিশ জানায়, জহুরুল ইসলাম তার বন্ধু মোনায়েম হোসেন সুজনকে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে একটি মামলার সাক্ষী দিতে রাজশাহীতে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে নিজ বাড়ি লক্ষ্মীপুরে ফেরার পথে রাত সাড়ে ৮ টার দিকে দিনাজপুরের বিরামপুর পৌর শহরের বিরামপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের কলেজ বাজার এলাকায় এলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বরযাত্রী বাস মোটরসাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই জহুরুল ও মোনায়েম মারা যান।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সামসুজ্জামান বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। মাথায় ও শরীরের বিভিন্নস্থান থেকে অনেক রক্তক্ষরণের কারণে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

জহুরলের পিতা আফফার উদ্দিন জানান, আমার ছেলের বিয়ের এক দিন হলো। আমার দুই মেয়ে ও এক ছেলের মধ্যে জহুরুল ইসলাম সবার বড়। সোমবার রুমা আকতারের সাথে তার বিয়ে হয়েছে। বিয়ের পরদিন মঙ্গলবার সকালে তার বন্ধু সুজনকে নিয়ে মোটরসাইকেলে রাজশাহী আদালতে মামলার সাক্ষী দিতে যান। আদালতের কাজ শেষে বিকেলে দুই বন্ধ মোটরসাইকেলে আবারো বাড়ি ফিরছিলেন। পথে বিরামপুর কলেজ বাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় দু’জনই প্রাণ হারিয়েছে। আমি এখন কি করবো।

বিজ্ঞাপন
Bellow Post-Green View