চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আলোর দিশারি সাবিলা নূর

Nagod
Bkash July

সুনয়না শারীরিকভাবে আর পাঁচটা মেয়ের স্বাভাবিক মত নয়। শারীরিকভাবে তিনি অক্ষম! তবে এই অক্ষমতা চলার পথে কোনো প্রতিবন্ধতা নয়, চাইলেই ইচ্ছে শক্তির জোরে অক্ষমতা ডিঙিয়ে সমাজে অন্যদের মাঝে জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে আলোকিত সমাজ গড়া যায়, সেই চেষ্টা চালিয়ে যান তিনি।

Reneta June

বই পড়তে আগ্রহী করতে সুনয়নার এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে তাকে স্থানীয় নির্বাহি অফিসার সংবর্ধনা দেন। সেই মঞ্চে সুনয়না উন্মোচন করেন স্থানীয় দুর্নীতিবাজদের মুখোশ! এই ঘটনার আগে পরে ঘটতে থাকে বিভিন্ন ঘটনা। আহমেদ তৌকীরের গল্প ও চিত্রনাট্যে অনন্য ইমনের পরিচালনায় এমনই এক সাহসী ও নারীপ্রধান সুনয়না চরিত্রে অভিনয় করলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাবিলা নূর।

‘বিরতিহীন যাত্রা’ নামে এ নাটকে সাবিলা অভিনয় করেন, যিনি হুইল চেয়ারে বসেও চারপাশের মানুষদের বই পড়তে অনুপ্রাণিত করেন। রাজধানীর বিমানবন্দর সংলগ্ন কাওয়া এলাকায় মঙ্গলবার দিনব্যাপী নাটকটির শুটিং চলছিল। সেখানে কথা হয় সাবিলার সঙ্গে।

দুপুরে শুটিং সেটে গিয়ে দেখা যায়, কয়েকবার স্ক্রিপ্ট রপ্ত করে হুইল চেয়ারে বসে আছেন সাবিলা। হাতে বই। স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা তাকে সংবর্ধনা দিচ্ছেন! দৃশ্যটি শেষ হওয়ার পর কথা হয় সাবিলা নূরের সঙ্গে। তিনি জানান, ওটিটি প্লাটফর্মে কাজের কারণে দুমাস পরে নতুন নাটকের শুটিং করছেন।

চ্যানেল আই অনলাইনকে সাবিলা বলেন, নারীপ্রধান গল্প বলেই এ কাজটি করতে আগ্রহী হয়েছি। সামাজিক বার্তা দেয় এমন কাজ আমি বেশী করি।

সাবিলা আরও বলেন, গতবছর নিজস্ব প্রতিবেদক, আমি রোকেয়া বলছি, হৃদিতা, মে আই কাম ইন-এর মত কাজগুলো প্রচার হওয়ার পর দর্শকদের থেকে ইতিবাচক ফিডব্যাক পেয়েছি। তখন থেকে এসব কাজে আগ্রহ বেড়েছে। তাছাড়া এমন চরিত্র করকে নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন হয়। এই যেমন সুনয়নার মাধ্যমে হুইল চেয়ারে বসে অনুভব হচ্ছিল এমন নারী চারপাশে আছেন যারা কীভাবে এবং কত কষ্ট করে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

সাবিলা নূরের ভাষ্য, প্রচারের পর দর্শক কাজটি দেখুক। ভালো মন্দ মিলিয়ে দর্শক গঠনমূলক আলোচনা করুক। ফিডব্যাকের অপেক্ষায় থাকবো।

পরিচালক অনন্য ইমন বলেন, শারীরিক অক্ষমতা বাঁধা নয়, মানসিক ইচ্ছাই যে কোন কিছু জয়ের জন্য যথেষ্ট সেটাই ‘বিরতিহীন যাত্রা’ নাটকের মূল প্রতিপাদ্য। সুন্দর বাংলাদেশ গড়তে দরকার বোধ পরিবর্তনের একটা যুদ্ধ। আমি সেই অদৃশ্য যুদ্ধ তুলে দর্শকদের বোধ জানিয়ে বার্তা দিতে চেয়েছি।

আহমেদ তাওকীর বলেন, এই গল্পের প্লট অনেকখানি সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে করা। আশা করছি দর্শক কাজটি দেখলে অনেককিছু শিখতে পারবে এবং অক্ষম নারীদের এগিয়ে যাওয়ায় পাশে থাকবে। সেইসঙ্গে গুটি কয়েক মন্দ মানুষ প্রতিবন্ধতা তৈরি করলেও সাধারণ মানুষ প্রতিবাদ করুক।

‘বিরতিহীন যাত্রা’ নাটকটি আগামী ঈদুর ফিতরে একটি বেসরকারি টিভিতে প্রচার হবে। সাবিলা নূর ছাড়াও অভিনয় করেছেন সাবেরী আলম, আব্দুল্লাহ রানা, সুদীপ বিশ্বাস দীপ, আনোয়ার প্রমুখ।

BSH
Bellow Post-Green View