চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ষোলো শেষে আটের যুদ্ধ

Nagod
Bkash July

কাল বাদে পরশু, শুক্রবার ৯ ডিসেম্বর বিশ্বকাপের মাঠে গড়াবে কোয়ার্টার ফাইনালের ফুটবল। সেরা আটটি দল মাঠে নামবে শেষ চারে জায়গা করে নিতে। কেমন ছিল রাউন্ড অব সিক্সটিন, আর কেমন হতে পারে কোয়ার্টারের ম্যাচগুলো?

Reneta June

রাউন্ড অব সিক্সটিন। মোটামুটি চেনা একটি জায়গায় বিশ্বকাপ দাঁড়াল। শুধু সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্পেন বাদ পড়ে গেল মরক্কোর বিপক্ষে টাইব্রেকারে ০-৩ ব্যবধানে হেরে। মরক্কো এখন পর্যন্ত এই বিশ্বকাপে মাত্র একটি গোল হজম করেছে, তা-ও নিজেদের জালে নিজেরাই জড়িয়ে দেয়া গোল সেটি, কানাডার বিপক্ষে প্রথম রাউন্ডে।

জাপানের জন্য টাইব্রেকার কাল হল। ক্রোয়েশিয়ার সাথে পেনাল্টি শ্যুটআউটে একদম আনাড়ি পরিচয় দিল জাপান, আর মরক্কোর বিপক্ষে অন্য ম্যাচে স্পেন। কোয়ার্টারে মরক্কো লড়বে পর্তুগালের বিপক্ষে আর ক্রোয়েশিয়া ব্রাজিলের।

পর্তুগাল যে রাউন্ড অব সিক্সটিনে এতোটা ভালো খেলবে তা আশা করা যায়নি। রোনালদোকে বেঞ্চে রেখে তার জায়গায় গনসালো রামোসকে খেলিয়ে এবারের বিশ্বকাপ দেখল প্রথম হ্যাটট্রিক। মূল একাদশে কোচের পছন্দের জায়গায় না থাকার কারণে রোনালদোর চোখে-মুখে ছিল আক্ষেপের ছাপ। কিন্তু সিআর সেভেন নিশ্চিতভাবেই দলের জন্য খুশি হয়েছেন। সুইজারল্যান্ডকে ৬-১ গোলে তছনছ করে দিয়েছে পর্তুগাল। তবে সামনে তাদের কঠিন প্রতিপক্ষ মরক্কো। তারাও কোয়ার্টারে ছেড়ে কথা বলার দল নয়।

অন্যদিকে কোয়ার্টারে ক্রোয়েশিয়াকে খেলতে হচ্ছে ব্রাজিলের বিপক্ষে। যে ব্রাজিল গত ম্যাচে সাউথ কোরিয়ার বিপক্ষে, অন্তত প্রথমার্ধে ছিল সাম্বায় ভরা কানায়-কানায়। ক্রোয়েশিয়া গত বিশ্বকাপের রানার্সআপ। ব্রাজিলকে রুখবার জন্য তাদেরও যথেষ্ট অভিজ্ঞতা ও কৌশল রয়েছে। হাড্ডাহাড্ডি হবে ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়ার মধ্যকার ম্যাচটি। নেদারল্যান্ডস এবং আর্জেন্টিনা স্বাভাবিক জয় পেয়েছে যেমনটা পাওয়া তাদের উচিত ছিল।

নেদারল্যান্ডস-এর দাপুটে দলীয় খেলা আর আর্জেন্টিনার হাই-লাইন ফুটবল দেখার মতো ছিল। বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়ার সাথে মেসির পারফরম্যান্স ছিল অতুলনীয়। দারুণ জমে উঠবে আর্জেন্টিনা-নেদারল্যান্ডস-এর ম্যাচটি। ইংল্যান্ড এবং ফ্রান্স খুবই আগ্রাসী ফুটবল খেলেছে যথাক্রমে সেনেগাল এবং পোল্যান্ডের বিপক্ষে।

কোয়ার্টার ফাইনালের সবচেয়ে বড় ম্যাচ হবে ইংল্যান্ড-ফ্রান্স। পর্তুগাল, আর্জেন্টিনা, ফ্রান্স, ইংল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস আর ব্রাজিল- এই ৬টি দল খুবই শক্তিশালী ফুটবল খেলে তারপর এসেছে কোয়ার্টার ফাইনালে। তাই বলে মরক্কো এবং ক্রোয়েশিয়াকে বাদ দেয়া চলবে না। দারুণ উজ্জীবিত দুটো দল। তারা মুখিয়ে থাকবে বড় অঘটন ঘটাতে।

রাউন্ড অব সিক্সটিনে আমরা কী পেলাম। এই বিশ্বকাপের অন্যতম বড় তিনজন তারকা: ক্রোয়েশিয়া কিপার ডোমিনিক লিভাকোভিচ, মরক্কোর কিপার ইয়াসিন বোনো, আর পর্তুগাল স্ট্রাইকার গনসালো রামোস। তারা যে আবার ম্যাজিক দেখাতে চাইবেন, তা নিশ্চিত করেই বলা যায়। শেষ আটের খেলা জমে উঠতে আর বাকি নেই।

তবে শুক্রবার রাতটিতে যদি আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিল জয় পায়, তাহলে সেমিতে দেখা হবেই হবে ল্যাটিন আমেরিকার বিশাল এই দুটি দলের। ১৯৯০ সালের বিশ্বকাপে শেষ দেখায় আর্জেন্টিনা দ্বিতীয় রাউন্ডে ১-০ গোলে হারিয়েছিল ব্রাজিলকে। সারাবিশ্ব হয়তো ৩২ বছর পর এমনই একটি সেমিফাইনাল দেখতে চাইছে। গ্রেটেস্ট শো অন আর্থে এরকম ম্যাচের চেয়ে বড় শো কি আছে?

BSH
Bellow Post-Green View