চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘লুঙ্গি পরায়’ টিকেট পাননি, জবাবে যা বললো সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ

স্টার সিনেপ্লেক্সের অধীনে মিরপুরে অবস্থিত সনিতে লুঙ্গি পরে ‘পরাণ’ দেখতে যাওয়ায় এক ব্যক্তিকে টিকেট দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরছে লুঙ্গি পরা সেই ব্যক্তির ছবি ও ভিডিও।

ছবি ও ভিডিওগুলো নিজেদের ওয়ালে শেয়ার করেছেন ‘পরাণ’ নির্মাতা রায়হান রাফী, চিত্রনায়ক শরিফুল রাজ ও বিদ্যা সিনহা মিম সহ টিমের অনেকে। শুধু পরাণ সংশ্লিষ্টরাই নন, সাধারণ সিনেপ্রেমীরাও এমন ঘটনার নিন্দা জানাচ্ছেন। সিনেমা দেখতে কেন ‘ড্রেস কোড’ লাগবে, এমন প্রশ্নও তুলছেন অনেকে। তারই প্রেক্ষিতে স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি বিবৃতি দিয়েছে।

Reneta June

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, স্টার সিনেপ্লেক্স পরিবারের পক্ষ থেকে আমরা জানাতে চাই, আমরা গ্রাহকদের সাথে কোনো কিছুর উপর ভিত্তি করে বৈষম্য করি না। আমাদের সংস্থায় এমন কোনো নিয়ম বা নীতি নেই যা একজন ব্যক্তিকে লুঙ্গি পরার কারণে টিকিট কেনার অধিকারকে অস্বীকার করবে। আমরা জানাতে চাই, আমাদের সিনেমা হলে সবাই নিজেদের পছন্দের সিনেমা দেখার জন্য সবসময় স্বাগতম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত ঘটনাটি সম্ভবত একটি দুর্ভাগ্যজনক ভুল বোঝাবুঝির ফলাফল। আমরা এই ঘটনাটি ঘটতে দেখে গভীরভাবে দুঃখিত এবং আমাদের নজরে আনার জন্য সংশ্লিষ্ট পক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমরা, স্টার সিনেপ্লেক্স পরিবার, আমাদের গ্রাহকদের সেরা সিনেমাটিক অভিজ্ঞতা দিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং আমরা এই ভদ্রলোককে তাঁর পরিবারের সাথে আমাদের সনি স্কয়ার শাখায় “পরাণ” দেখার জন্য আন্তরিকভাবে আমন্ত্রণ জানাই। এছাড়াও, আমরা এই ঘটনাটি তদন্ত করছি যেন ভবিষ্যতে এই ধরনের ভুল বোঝাবুঝি না হয়। আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাদের সকলকে ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন

ঈদুল আজহায় মাত্র ১১ সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছিল ‘পরাণ’। মুক্তির পর থেকে চিত্র পাল্টাতে থাকে। মুক্তির চতুর্থ সপ্তাহে ৬০ প্রেক্ষাগৃহে চলছে মিম, শরিফুল রাজ, ইয়াশ রোহান অভিনীত এ ছবি।