চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঈদ সামনে রেখে বাংলায় নতুন গোয়েন্দা!

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে গোয়েন্দা কাহিনী ‘কাইজার’, ঈদ সামনে রেখে ৮ জুলাই আসছে হইচইয়ে...

আট থেকে আশি, গোয়েন্দা গল্প পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুস্কর। ফেলুদা, ব্যোমকেশ থেকে মাসুদ রানা- এসবে বুঁদ বাঙালি। এবার একেবারে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অন্যরকম এক গোয়েন্দা কাহিনী উন্মোচিত হতে যাচ্ছে, যার নাম ‘কাইজার’।

তবে এটা বইয়ের পাতায় নয়, গোয়েন্দা কাহিনী ‘কাইজার’ দেখতে হবে ওটিটি প্লাটফর্ম হইচইয়ে! ঈদকে সামনে রেখে আসছে ৮ জুলাই। আর কাইজার চরিত্র রূপদান করেছেন ছোট পর্দার তারকা অভিনেতা আফরান নিশো। গোয়েন্দা চরিত্রে যাকে দেখতে মুখিয়ে আছে বাংলার অসংখ্য দর্শক শ্রোতা!

Reneta June

বুধবার প্রকাশিত হয়েছে ‘কাইজার’ এর ট্রেলার! বহুল প্রতীক্ষিত হইচই অরিজিনাল সিরিজ ‘কাইজার’ এর ট্রেলার নিয়ে রীতিমত হইচই শুরু হয়েছে। বুধবার বিকেলে রাজধানীর কৃষিবীদ ইনস্টিটিউটের একটি হল রুমে প্রেস ইভেন্টে ট্রেলারটি প্রথম দেখানো হয়। এরপর হইচইয়ের বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ট্রেলার উন্মোচন অনুষ্ঠানে ‘কাইজার’ নির্মাতা তানিম নূর সহ উপস্থিত ছিলেন প্রধান চরিত্র আফরান নিশো সহ অন্যান্যরাও। অনুষ্ঠানে কাইজার চরিত্রটিকে সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে এভাবে, এডিসি কাইজার চৌধুরী একজন হোমিসাইড ডিটেকটিভ। সে ভিডিও গেম অ্যাডিক্ট। হোমিসাইড ডিটেকটিভ হলেও সে রক্ত ভয় পায়। অনিয়ন্ত্রিত জীবন-যাপন এবং ভিডিও গেম আসক্তির জন্য তার ব্যক্তিগত জীবন বিপর্যস্ত। ডিপার্টমেন্টেও তার খুব সুনাম নেই। কিন্তু ডিটেকটিভ হিসেবে সে প্রথম শ্রেণির। তার বুদ্ধিদীপ্ততার জন্যই সে এখনও চাকরিতে বহাল রয়েছে।

কাইজার সম্পর্কে ধারণা দিতে আরও বলা হয়, কাইজারের অসংখ্য দোষ রয়েছে কিন্তু জীবনের গভীরে উঁকি দিলে দেখা যায় সেও একজন সংবেদনশীল মানুষ। গুলশানে একটি ফ্ল্যাটে প্রভাবশালী পরিবারের দুই তরুণীকে নৃশংসভাবে খুন করা হয়। এই জোড়াখুনের রহস্য সমাধানের দায়িত্ব এসে পড়ে এডিসি কাইজারের উপর। এরকম একটি গল্প নিয়েই শুরু গোয়েন্দা কাহিনী ‘কাইজার’। যা দেখা গেছে ট্রেলারেও!

ট্রেলার উন্মোচন অনুষ্ঠানে নিশো তার চরিত্রটি নিয়ে বলেন, ‘কাইজার’ করতে গিয়ে দারুণ অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছি। বিশেষ করে এই সিরিজের নির্মাতা তানিম নূরের সাথে এরআগে আমার কোনো পরিচয় ছিলো না। কাজ করতে গিয়েই পরিচয়, এতো গোছানো প্রজেক্ট খুব কমই দেখেছি।

তানিম নূর বলেন, ছোটবেলা থেকে বিভিন্ন গোয়েন্দা গল্প পড়ে বড় হওয়ায় সব সময় আমার ইচ্ছা ছিল বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে একটি গোয়েন্দা চরিত্র তৈরি করার। যেহেতু কাইজার আমার ছোটবেলার অনুপ্রেরণা থেকে নির্মাণ করা একটা সিরিজ, এটা আমার জন্য বেশ বড় একটা চ্যালেঞ্জ ছিল। চ্যালেঞ্জে কতটা সফল হয়েছি সেটা এখন দর্শকেরা ভাল বলতে পারবেন।

আয়মান আসিব স্বাধীনের সংলাপ ও চিত্রনাট্যে কাইজারের নাম ভূমিকায় আফরান নিশো ছাড়াও অভিনয় করেছেন দীপান্বিতা মার্টিন, রিকিতা নন্দিনী শিমু, মোস্তাফিজুর নূর ইমরান, শঙ্খ জামান, শতাব্দী ওয়াদুদ, সুমন আনোয়ার, ইমতিয়াজ বর্ষণ, সৌম্য জ্যোতি ও শিশুশিল্পী ঋদ্ধি।