চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রথম গানেই মুগ্ধতা, ‘পরাণ’ নিয়ে দর্শকের আগ্রহ বাড়ছে

‘প্রেমে/হাসিয়া/ভাসিয়া/উতলা হাওয়ায়/চলো নিরালায়/চলো নিরালায়…’-রায়হান রাফী পরিচালিত ‘পরাণ’ চলচ্চিত্রের ‘চলো নিরালায়’ গানের শুরুর কয়েকটি লাইন। সোমবার (২৭ জুন) এটি প্রকাশের পর থেকে দর্শক-শ্রোতারা ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন। অন্তত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে গানটি নিয়ে চলছে প্রশংসার ফুলঝুড়ি।

সাধারণ মানুষের পাশাপাশি সংগীতাঙ্গনের শিল্পীরাও গানটির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। ‘পরাণ’ চলচ্চিত্রের প্রধান দুই অভিনয়শিল্পী শরিফুল রাজ ও বিদ্যা সিনহা মিমের দারুণ রসায়ন নিয়ে সাজানো হয়েছে ‘চলো নিরালায়’-এর ভিডিও। গানের সুবাদে এই জুটিকে বড় পর্দায় দেখার আগ্রহ বেড়ে গেছে দর্শকদের।

Reneta June

বখাটে তরুণের ভূমিকায় রাজ এবং মধ্যবিত্ত পরিবারের সাধারণ মেয়ের সাজে মিমের প্রশংসা করছেন দর্শকরা। তাদের খুনসুটি, প্রাণচাঞ্চল্য, পাগলামিসহ সবই নজর কেড়েছে।

বিজ্ঞাপন

গানটি নিয়ে রাজ ও মিম বেশ রোমাঞ্চিত। ফেসবুক লাইভে এসে নিজেদের এই অনুভূতির কথা জানিয়েছেন দুই জনই। একইসঙ্গে ভিডিওটি শেয়ার দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তারা। এরপর মিম গানটি নিয়ে টিকটক করেছেন।

গত ২৬ জুন সন্ধ্যায় গানটির ২৭ সেকেন্ডের টিজার মুক্তি পায় অনলাইনে। এরপর থেকে এর প্রতি ভালো লাগা বাড়তে থাকে দর্শক-শ্রোতাদের।

‘চলো নিরালায়’ গেয়েছেন অয়ন চাকলাদার ও আতিয়া আনিসা। এবারই প্রথম একসঙ্গে মৌলিক গানে কণ্ঠ দিলেন তারা। এটি অয়নের প্রথম প্লেব্যাক। তবে চলচ্চিত্রে এ নিয়ে আনিসার গাওয়া গানের সংখ্যা দাঁড়ালো সাত। দুই কণ্ঠশিল্পী ‘চলো নিরালায়’ নিয়ে উচ্ছ্বসিত। ফেসবুকে লাইভে এসে তারা বলেন, ‘গানটি একবার শুনলেই ভালো লাগছে শ্রোতাদের। যারাই শুনছে সবাই ইতিবাচক সাড়া দিচ্ছেন। সত্যি বলতে প্রশংসায় ভাসছি আমরা। আনন্দের বিষয় হলো, ভালো একটি সিনেমায় গানটা আছে।’

‘চলো নিরালায়’ গানটির কথা লিখেছেন গীতিকবি জনি হক। সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন নাভেদ পারভেজ। লাইভ টেকনোলজিসের ইউটিউব চ্যানেলে এটি পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া ফেসবুকেও শ্রোতারা উপভোগ করতে পারছেন গানটি।

‘পরাণ’ চলচ্চিত্রের আরেক প্রধান অভিনয়শিল্পী ইয়াশ রোহান। আসন্ন ঈদুল আজহায় রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে মুক্তি পাবে এটি।