চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইউনাইটেড চাইলেও আটকা পড়েছেন রোনালদো

বলছেন পর্তুগিজ ফুটবল বিশেষজ্ঞ পেদ্রো

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা হারানোর পর গুঞ্জন ছিল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ক্লাব ছাড়বেন। নতুন কোচ এরিক টেন হাগের অধীনে তাকে রাখা না রাখা নিয়েও ছিল আলোচনা। নতুন খবর, ক্লাব চাইলেও নাকি রেড ডেভিল ডেরা ছাড়বেন না পর্তুগিজ মহাতারকা। কারণ, দলবদলের ক্ষীণ সম্ভাবনা ও বেশি বেতন।

রোনালদোর স্বদেশি ফুটবল বিশেষজ্ঞ পেদ্রো সেপুলভেদার মতে, বড় অঙ্কের বেতনের কারণে সিআর সেভেনকে দলে টানবে না কোনো ক্লাব। এমনকি ৩৭ বর্ষী কিংবদন্তি প্রিমিয়ার লিগের অন্য ক্লাবে খেলার যোগ্যতা হারিয়েছেন বলেও ইঙ্গিত তার।

Reneta June

পেদ্রো বলছেন, ‘এটা নিশ্চিত যে তিনি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেই থাকছেন। কেননা কেউ ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জন্য অর্থ খসাবে না। তার মানে তিনি অর্থের অযোগ্য সেটাও বলছি না। কিন্তু বিষয়টি হচ্ছে আপনি সম্ভাবনাগুলো দেখেন। ইউনাইটেড বাদে অন্যকোন দলের হয়ে খেলতে পারবেন রোনালদো?’

বিজ্ঞাপন

পেদ্রোর মতে, দলবদলের বাজারে নিজের জৌলুস হারিয়েছেন রোনালদো। তারকা স্ট্রাইকারকে পেতে কাড়াকাড়ি লেগে যাওয়া সেদিন আর নেই। এমন হয়েছে প্রিমিয়ার লিগের অন্য ক্লাব থেকে রিয়াল মাদ্রিদ হয়ে পিএসজি— পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ীকে টানতে চাইবে না কোনো ক্লাব। বাধ্য হয়ে ওল্ড ট্রাফোর্ডেই থাকতে হবে।

‘আমি শতভাগ নিশ্চিত, ইউনাইটেডে প্রত্যাবর্তনের পর অন্যকোনো ইংলিশ ক্লাবের হয়ে খেলতে পারবেন না রোনালদো। এর বাইরে রিয়াল মাদ্রিদ, ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ সেখানে তাকে ফেরাবেন বলে মনে করি না। পিএসজিতে ভিন্ন কোচ ও স্পোর্টিং ডিরেক্টর এসে তাদের নতুন প্রোজেক্টে রোনালদোকে চুক্তি করাবেন বলে সত্যি মনে করছি না।’ বলছেন পেদ্রো।

ওল্ড ট্রাফোর্ডে রোনালদোর প্রত্যাবর্তন দারুণ হলেও ক্লাব ভুগেছে বেশ। বাজে পারফর্মের কারণে প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের সেরা পাঁচেও জায়গা হয়নি রেড ডেভিলদের। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার যোগ্যতা হারিয়ে নড়েচড়ে বসেছে ইংলিশদের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। দলকে ঢেলে সাজাতে চলেছেন ডাচ কোচ টেন হাগ।

‘তারুণ্য নির্ভর’ দল চাওয়া কোচের অধীনে ৩৭ বর্ষী রোনালদোর থাকা না থাকা নিয়ে ছিল আলোচনা। সেটি যদিও শেষ হয়েছে। কিন্তু নতুন মৌসুমে বেনফিকা স্ট্রাইকার ডারউইন নুনেজের উপর কড়া চোখ রেখেছে ইউনাইটেড। ২২ বর্ষী উরুগুইয়ানকে যদি টানতে পারে, তাহলে শুরুর একাদশে নিয়মিত জায়গা হারাতে পারেন রোনালদো। সেক্ষেত্রে সপ্তাহে ৫ লাখ ডলার বেতন নেয়া সিআর সেভেনকে ডাগআউটে বসে কাটাতে হতে পারে অনেকটা সময়।