চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

নিজেকে পুরনো ফর্মে ফিরে পাওয়ায় তৃপ্ত বিজয়

Nagod
Bkash July

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টুয়েন্টি সিরিজে ২-১ ব্যবধানে হারের পর একই ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ হেরেছে বাংলাদেশ। ভুলে যাওয়ার মতো একটি সফর শেষে দেশে পৌঁছেছে টাইগার ক্রিকেটাররা। দীর্ঘ ৩ বছর পর একদিনের ক্রিকেটে ফেরা এনামুল হক বিজয় নিজের পারফর্মে খুশি। তার বিশ্বাস ২০ ওভারের ক্রিকেটে খুব দ্রতই সুদিন ফেরাবে দল।

শুক্রবার বিজয় বলেছেন, ‘টি-টুয়েন্টিতে আমরা ভালো করছি না-এটা সবাই অবগত। তবে ভালো করার সুযোগ আছে, ভালো করা সম্ভব। আমাদের বোলিং বিভাগ, ব্যাটিং বিভাগের বিশ্বমঞ্চে ভালো করার সামর্থ্য আছে। একটু সময় লাগছে। আমি এবং প্রত্যেক খেলোয়াড়ের বিশ্বাস আমরা টি-টুয়েন্টিতেও কামব্যাক করতে পারব।’

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) রানের ফোয়ারা ছোটানো বিজয় জিম্বাবুয়ে সফরের শুরুতে রান পাচ্ছিল না। ৩ ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজের সবকটি খেলে করেছেন মাত্র ৫৬! তবে ওয়ানডে ক্রিকেটে ফিরতেই বদলে যান তিনি। ৩ ম্যাচে ৫৬.৩৩ গড়ে ১৬৯ রান। স্ট্রাইক রেটও ছিল একশ’র বেশি, ১০৬.৯৬। লম্বা বিরতির পর ফিরে নিজের কাজটা করতে পেরে তৃপ্ত বিজয়।

‘অনেকদিন পর ওয়ানডে দলে এলাম। এ জন্য খুব ভালো লাগছে, খুব এক্সসাইটেড ছিলাম। অনেক কঠোর পরিশ্রম করেছি, অনেকদিন এরকম সময় পার করেছি। আসলে ৩ বছর পর যেহেতু আসছি চেষ্টা করেছি যে সুযোগটা কাজে লাগানোর জন্য, আমার প্রসেসটা ঠিক রাখা।’ বলেছেন বিজয়।

জিম্বাবুয়েতে দুটি সিরিজ হারের পেছনে কারণ খুঁজতে গিয়ে তিনি পেয়েছেন ‘নার্ভাসনেস’। প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফরম্যান্স করতে না পারায়ও হারের দায় দেখছেন এই ডানহাতি উইকেটরক্ষক ব্যাটার। স্বাগতিক দলকেও ক্রেডিট দিয়েছেন বিজয়, ‘জিম্বাবুয়ের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জেতাটা আসলে সহজ ছিল না। এটা সত্যি ওরা ভালো ক্রিকেট খেলেছে। আমাদেরও ঘাটতি ছিল। দুটি মিলিয়েই আমরা হেরে গেছি।’

BSH
Bellow Post-Green View