সৌদির দলবদল: ফিফাকে আপত্তির কথা জানাবে ইপিএলের ক্লাবগুলো

ইউরোপীয় লিগ ছেড়ে অনেক তারকা খেলোয়াড়ই সৌদি আরবে ঠিকানা খুঁজে নিচ্ছেন। সৌদি প্রো লিগের অর্থের ঝনঝনানি দলবদলের বাজারে কিছুটা হলেও প্রভাব ফেলেছে। একের পর এক তারকা খেলোয়াড়দের সৌদি যাত্রা উদ্বেগ বাড়াচ্ছে ইউরোপীয় শীর্ষ লিগের কোচ ও কর্তাদের। এবার ফিফাকে এ ব্যাপারে আপত্তির কথা জানাতে চায় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের (ইপিএল) ক্লাবগুলো।

গত জানুয়ারিতে ইউরোপ ছেড়ে সৌদি আরবে পাড়ি জমিয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তার দেখানো পথ ধরে ইউরোপ থেকে তারকা ফুটবলাররা একে একে মরুর দেশে পাড়ি দিচ্ছেন। রোনালদোর পর সৌদি ক্লাবগুলো করিম বেনজেমা, হেন্ডারসন ও রবের্তো ফিরমিনোর মতো বড় তারকাদের সঙ্গে চুক্তি করেছে। এমনকি বায়ার্ন মিউনিখ থেকে সাদিও মানেও যোগ দিয়েছেন রোনালদোর দলে।

প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোর দাবি, ইউরোপ থেকে তারকা খেলোয়াড়দেরকে নিয়ে যাচ্ছে সৌদি প্রো লিগ। যা ভবিষ্যতের জন্য হুমকিও মনে করছেন অনেক কোচ। এ ব্যাপারে পেপ গার্দিওলা ও ইয়ূর্গেন ক্লপ জানিয়েছিলেন শঙ্কার কথা।

তাদের দাবি, সৌদি আরবের দলবদলের উইন্ডো ইপিএলের চেয়ে এক সপ্তাহ বেশি খোলা থাকে। এতে করে শেষ মুহূর্তে ইপিএল থেকে খেলোয়াড় চলে গেলে নতুন করে দল পূর্ণ করতে সময় পাবে না তারা। এমনকি অপেক্ষা করতে হবে জানুয়ারির দলবদলের উইন্ডো চালু হওয়া পর্যন্ত।

সৌদি লিগের দলবদলের বাজার বন্ধ হবে আগামী ৭ সেপ্টেম্বর। অপরদিকে, ইপিএলসহ শীর্ষ ইউরোপিয়ান লিগের দলবদল শেষ হবে আরও ৬ দিন আগে। তাতে ইউরোপীয় ক্লাবগুলোর আশঙ্কা, এ সময়ের মধ্যে আকর্ষণীয় প্রস্তাব দিয়ে সৌদি ক্লাবগুলো খেলোয়াড় কিনলে তখন আর বিকল্প ফুটবলার আনারও সুযোগ থাকবে না।

মূলত লিভারপুল কোচ ক্লপের উদ্বেগ প্রকাশের পর থেকেই বিষয়টি সামনে এসেছে। বাকি ক্লাবগুলোও বিষয়টি নিয়ে গুরুত্বের সঙ্গে ভাবছে। ফিফার প্রতি, মূলত ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এফএ) মধ্য দিয়ে দাবিটি জানানো হবে।

ইয়ূর্গেন ক্লপএফএগার্দিওলাটেন হাগফিফামানেরোনালদোলিড স্পোর্টসসৌদি প্রো লিগ