চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যে দাবি নিয়ে মানববন্ধনে আবুল হায়াত!

অনেক পরিবারে শেষ বয়সে এসে সন্তানদের কাছে বৈষম্যের শিকার হন বাবা-মা। যে সন্তানদের লালন পালন করে বড় করে তুলেন, একটা সময় গিয়ে তাদের কাছেই বাবা-মা বোঝা হিসেবে বিবেচিত হন। তাদের ঠাঁই হয় বৃদ্ধাশ্রমে।

ওই সব বঞ্চিত বাবা-মায়ের পক্ষে মানববন্ধন করছেন বরেণ্য অভিনেতা আবুল হায়াত। তবে সেটা দেখা যাবে সিনেমার পর্দায়। ‘দায়মুক্তি’ নামের একটি ছবিতে।

বিজ্ঞাপন

সমাজের এই অসঙ্গতি নির্মিত ছবিটি পরিচালনা করছেন বদিউল আলম খোকন। সরকারী অনুদানে রাইসা ফিল্মের প্রযোজনায় নির্মিত হচ্ছে ছবিটি। নির্মাতা খোকন জানান, ‘দায়মুক্তি’ ছবির একেবারে শুটিং শেষ পর্যায়ে। চলছে পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ।

আবুল হায়াত বলেন, অনেক সন্তানরা তাদের বাবা-মাকে বৃদ্ধ বয়সে বৃদ্ধাশ্রমে পাঠিয়ে দেয়। কিন্তু বাবা-মা শেষ সময়ে নাতি-নাতনীদের নিয়ে আনন্দে থাকতে চায়। বৃদ্ধদের পরিবার পরিজনের সাথে থাকতেই এ মানববন্ধন।

তিনি বলেন, ‘ছবির গল্প খুবই আবেগী ও সময় উপযোগী। এমন গল্পে অভিনয় করে ভালো লাগছে। দর্শকদেরও ভালো লাগবে। সেই সাথে সন্তানরা সচেতনও হবে।’

পরিচালক বদিউল আলম খোকন বলেন, বাবা-মাকে অসম্মান করার চিত্র আমাদের সমাজে ভয়ংকর থেকে আরো ভয়ংকর হয়ে উঠেছে। বৃদ্ধ বয়সে পিতা-মাতার শেষ ঠিকানা বৃদ্ধাশ্রম নয়, পরিবার। পারিবারিক সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই দায়মুক্তি ছবি নির্মাণ করছি। আমি নিজেও যে ধরনের ছবি বানাই সেখান থেকে বেরিয়ে নতুন ফরম্যাটে কাজ করছি।

আসাদুজ্জামান মজনু’র ক্যামেরায় দায়মুক্তি ছবিতে অভিনয় করেছেন সায়মন সাদিক, সুস্মি, সেলিম, শিউলি, দিলারা জামান প্রমুখ।

‘দায়মুক্তি’ ২০১৭ সালে সরকারি অনুদান প্রাপ্ত সিনেমা। আগে পরিচালক ছিলেন কমল সরকার। পরে ছবিটির কাজ শেষ করছেন বদিউল আলম খোকন। জানা যায়, নানা কারণে এতোদিন ছবিটির কাজ আটকে ছিল। তবে এবার শেষ হয়ে মুক্তির মিছিলে আসছে ছবিটি।

বিজ্ঞাপন