চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘তদন্তে আহামরি কিছু পাওয়া যায়নি’

প্রসঙ্গ বিশ্বকাপ ব্যর্থতা

টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ব্যর্থতার কারণ জানতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলে তদন্ত প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন করেছেন বোর্ডের দুই পরিচালক এনায়েত হোসেন সিরাজ ও জালাল ইউনুস।

আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার আগেই বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন দিলেন কিছু ধারণা, ‘আমরা একটা কমিটি করেছিলাম। সেখানে জালাল ভাইকে রেখেছিলাম এবং সিরাজ ভাইকে রেখেছিলাম। দুজনই সম্মানিত ও অভিজ্ঞ খেলোয়াড় হিসেবেও, পরিচালক হিসেবেও। একটু স্বাধীনভাব আনার চেষ্টা করেছি। আমরা যারা খেলোয়াড়দের সঙ্গে যোগাযোগ রাখি, তাদের কাউকে রাখা হয়নি। তারা তাদের তদন্ত করছেন, হয়ত শেষ করে ফেলেছেন বা প্রায় শেষ পর্যায়ে। রিপোর্টটা এখনো দেননি, দিয়ে দেবেন।’

‘অনানুষ্ঠানিকভাবে আমি জালাল ভাইয়ের কাছ থেকে কিছু তথ্য নেয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে আহামরি তেমন কিছু পাওয়া যায়নি। এটাতে আমি অবাক হইনি। জানতাম এরকমই হবে। এইগুলা এত সহজে বের হবে না, সমস্যা যদি থাকে।’

বিজ্ঞাপন

‘আমরা যদি আপনাদের নিয়ে কমিটি করি। আর আপনারা খেলোয়াড়দের ডাকেন। আর খেলোয়াড়রা যদি বলে না কোচ নিয়ে কোনো সমস্যা নেই, তাহলে আপনি কী ব্যবস্থা করবেন। আপনার কি কিছু করার আছে।’

‘এটাও বুঝি, যদি কিছু থেকেও থাকে, বলছি না কিছু আছে, প্লেয়ারদের পক্ষে ফট করে একবার জিজ্ঞেস করলে বলে দেবে এত সহজ না। একটা ইনিশিয়াল হয়েছে। কিছু গুরুত্বপূর্ণ জিনিস পাওয়া গেছে। তবে কোচিং স্টাফের ব্যাপারে কিছু পাওয়া যায়নি।’

‘এই তদন্ত পর্যাপ্ত না। আমার ধারণা আমার নিজেরও তদন্ত করা উচিত। বেশকিছু সিনিয়র খেলোয়াড়দের চিন্তাধারা আমার চেয়ে কেউ তো বেশি বুঝে না। আমি মনে করি ওয়ান-টু-ওয়ান কথা বলা দরকার। কিছু জুনিয়র, কিছু সিনিয়র খেলোয়াড়দের সঙ্গে।’

‘এবার যারা যাচ্ছে না নিউজিল্যান্ড সিরিজে। বেশকিছু টি-টুয়েন্টি খেলোয়াড় কিন্তু আছে মাহমুদউল্লাহসহ। ওনাদের রিপোর্ট যেদিন দেবে, তার পরপরই বসতে চাই ওদের সঙ্গে।’ যোগ করেন নাজমুল হাসান।

বিজ্ঞাপন