চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আদালতপাড়া ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দপ্তরে ‘হামলার পরিকল্পনা’

জেএমবি’র শীর্ষ নেতাদের মুক্ত করতে আদালতপাড়া, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দপ্তরে আইইডিসহ বিস্ফোরক হামলা চালানোর পরিকল্পনা ছিল নীলফামারী সদর উপজেলার মাঝাপাড়া থেকে গ্রেপ্তার হওয়ায় পাঁচ জঙ্গির।

উত্তরাঞ্চলে বিভিন্ন চাকুরীতে প্রবেশ করে ছদ্মবেশে সদস্য সংখ্যা বাড়িয়ে চলছিল জেএমবি বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার দিবাগত রাত থেকে শনিবার সকাল ১১টা পর্যন্ত র্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-১৩ এর যৌথ অভিযানে নীলফামারী সদরের মাঝাপাড়া গ্রাম থেকে জেএমবি’র রংপুর অঞ্চলের সামরিক শাখার প্রধান আহিদুল ইসলাম ওরফে আহিদ ওরফে পলাশ, তার অপর ৪ সহযোগি ওয়াহেদ আলী ওরফে আব্দুর রহমান, আব্দুল্লাহ আল মামুন ওরফে ডা. সুজা, জাহিদুল ইসলাম জাহিদ ওরফে জোবায়ের ও নূর আমিন ওরফে সবুজকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, ‘জঙ্গি আস্তানা থেকে উদ্ধার করা হয় শক্তিশালী আইইডিসহ বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক, অস্ত্র ও গোলাবারুদ।’

‘‘উত্তরাঞ্চলে ছদ্মবেশে জেএমবি’র নেতা আহিদুল সদস্য সংগ্রহ করতো, অনলাইনে চলতো তাদের আইইডি প্রস্তুতের প্রশিক্ষণ। বিস্ফোরক তৈরীতে আহতদের চিকিৎসা দিতো গ্রেফতার হওয়া ডা. সুজা।’’

বিজ্ঞাপন