চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

২৫টি ভুয়া নির্দেশনা বন্ধে ৪০০০ কোটি টাকা রক্ষা

হ্যাকারদের হাত থেকে পাঁচটি নির্দেশনা রক্ষা করতে না পারলেও ২৫টি ভুয়া নির্দেশনা বন্ধ করে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থেকে ৫০০ মিলিয়ন ডলার বা ৪০০০ কোটি টাকা রক্ষা করতে পেরেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

জোচ্চুরির বিষয়টি ধরা পড়ার পর দ্রুত ব্যবস্থা নিয়ে ওই ভুয়া নির্দেশনাগুলো বন্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্ককে বলা হয়।

পাঁচ কথিত নির্দেশনায় খোয়া যাওয়া টাকা উদ্ধারের কথা জানালেও ওই ২৫টি নির্দেশনা আটকে রিজার্ভ রক্ষার কৃতিত্বের ব্যাপারে আপাতত: আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলছে না বাংলাদেশ ব্যাংক। 

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক শুভঙ্কর সাহা চ্যানেল আই অনলাইনকে শুধুমাত্র পাঁচ নির্দেশনার ব্যাপারে জানিয়ে ২৫টির বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি দায়িত্বশীল সূত্র ওই ২৫ নির্দেশনা বন্ধের মাধ্যমে চার হাজার কোটি টাকা রক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

শুভঙ্কর সাহা চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, হ্যাক হওয়া টাকার মধ্যে আমরা শ্রীলঙ্কা থেকে ২০ মিলিয়ন ডলার ওই দেশের এন্টি মানি লন্ডারিং ইউনিটের মাধ্যমে নিয়ে এসেছি। এখন ফিলিপাইনে চলে যাওয়া বাকি ৮১ মিলিয়ন ডলার ফেরত আনতে ওই দেশের এন্টি মানি লন্ডারিং ইউনিটের সাথে যোগাযোগ করে নিয়ে আসার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে।

ফেব্রুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময়ে ওই হ্যাকিং ও টাকা পাচারের ঘটনা ঘটে। বাংলাদেশ ব্যাংকের তৎপরতায় পাচার হওয়ার টাকার একাংশ দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আগেই জানানো হয়েছে। 

কয়েকটি বেসরকারী ব্যাংকের এটিএম বুথে স্কিমিং ডিভাইস বসিয়ে জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা তুলে নেওয়ার ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই, বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থেকে এই ৮০০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনা। দেশে এত বড় সাইবার অপরাধের এই প্রথম।

শেয়ার করুন: