চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হুমায়ূনের জন্মদিনে চ্যানেল আইয়ে ‘ঘেটুপুত্র কমলা’

হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিন উপলক্ষে ১৩ নভেম্বর বিকেল ৩টা ৫ মিনিটে চ্যানেল আইয়ে দেখানো হবে হুমায়ূন আহমেদ নির্মিত সর্বশেষ চলচ্চিত্র ‘ঘেটুপুত্র কমলা’।

ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত এ ছবিতে অভিনয় করেছেন জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, প্রাণ রায়, মুনমুন আহমেদ, কণ্ঠশিল্পী আগুন, আবদুল্লাহ রানা, ফজলুর রহমান বাবু, শিশুশিল্পী মামুন প্রমুখ। ছবিটি নির্মাণের আগেই তিনি ঘোষণা দিয়েছিলেন আর ছবি বানাবেন না।

চিরাচরিত জমিদার চরিত্রকে অন্যরূপে হাজির করেছে তিনি এ ছবিতে। গল্পের প্রেক্ষাপট প্রায় দেড়’শ বছর আগের, ব্রিটিশ আমলের। সিনেমার শুরুতে ভয়েসওভারে সেই প্রেক্ষাপটের একটি সংক্ষিপ্তসার তুলে ধরেছিলেন।

তখনকার হবিগঞ্জ জেলার জলসুখা গ্রামের পটভূমিতে চলচ্চিত্রটির কাহিনী গড়ে উঠেছে। সে সময় জলসুখা গ্রামের এক বৈষ্ণব আখড়ায় ঘেটুগান নামে নতুন গ্রামীণ সংগীতধারা সৃষ্টি হয়েছিল। সেই সংগীত ধারায় মেয়েদের পোশাক পরে কিছু সুদর্শন সুন্দর মুখের কিশোরদের নাচগান করার রীতি চালু হয়। এই কিশোরদের আঞ্চলিক ভাষাতে ‘ঘেটুপুত্র’ নামে ডাকা হতো। এই সংগীতধারাতে গান প্রচলিত সুরে কীর্তন করা হলেও উচ্চাঙ্গসংগীতের প্রভাব বেশ লক্ষণীয় ছিল।

গ্রাম্য অঞ্চলের অতি জনপ্রিয় নতুন সংগীত-রীতিতে নারী বেশধারী কিশোরদের উপস্থিতির কারণেই এর মধ্যে অশ্লীলতা ঢুকে পড়ে। সমাজের বিত্তবানরা বিশেষ করে জমিদাররা এইসব কিশোরকে যৌনসঙ্গী হিসেবে পাবার জন্যে লালায়িত হতে শুরু করেন। একসময় সামাজিকভাবে বিষয়টা স্বীকৃতি পেয়ে যায়। হাওর অঞ্চলের জমিদার ও বিত্তবান সৌখিন মানুষরা বর্ষাকালে জলবন্দি সময়টায় কিছুদিনের জন্য হলেও ঘেটুপুত্রদের নিজের কাছে রাখবেন এই বিষয়টা স্বাভাবিকভাবে বিবেচিত হতে থাকে। আর বিত্তবানদের স্ত্রীরা ঘেটুপুত্রদের দেখতেন সতীন হিসেবে। কমলা নামের এমনই এক ঘেটুপুত্রের গল্প নিয়েই হুমায়ূন আহমেদ নির্মাণ করেছিলেন ‘ঘেটুপুত্র কমলা’।

শেয়ার করুন: