চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হায়দরাবাদে সিংহের শরীরে করোনা, নতুন আতঙ্ক

হায়দরাবাদের চিড়িয়াখানায় ৮ এশিয়ান সিংহ করোনা পজিটিভ হয়েছে। এরপর ছড়িয়ে পড়েছে নতুন আতঙ্ক!

প্রশ্ন উঠেছে মানুষের দেহ থেকে পশুদের মধ্যে কি করোনা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে? আর যদি ছড়ায় তা হলে কি তা আরও ভয়াবহ রূপ নিয়ে পশুদের থেকে মানুষের মধ্যে ফের সংক্রমণ ঘটতে পারে?

আনন্দবাজার পত্রিকা বলছে, সম্প্রতি হায়দরাবাদের চিড়িয়াখানার ৮ সিংহের মধ্যে করোনা সংক্রমণ মিলেছে। হাঁচি, খাবারে অনীহা ইত্যাদি লক্ষণ দেখেই নাক এবং গলা থেকে নমুনা নিয়ে আরটি-পিসিআর পরীক্ষা করানো হয়েছিল সিংহগুলোর। এই প্রথম ভারতে চিড়িয়াখানার কোনো পশুর মধ্যে করোনা সংক্রমণ মিলল।

এতে করে কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে বিশেষজ্ঞদের। যদিও মানুষের থেকেই সিংহগুলো সংক্রামিত হয়েছে কি না তা এখনই নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু তাদের কাছে উদ্বেগের বিষয় হল, মানুষের থেকে পশুদের সংক্রমণ ঘটলে এবং সেই ভাইরাস পশুদেহে রূপ বদলে (মিউটেশন ঘটিয়ে) পুনরায় মানুষের শরীরে প্রবেশ করে তা হলে আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে।

বিজ্ঞাপন

সে জন্য সিংহগুলোকে নজরে রাখা খুব দরকার বলে মনে করেন সেন্টার ফর সেলুলার অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজির অধিকর্তা চিকিৎসক রাকেশ মিশ্র।

তিনি বরেন, সিংহগুলোকে নজরে রাখা হয়েছে। যাতে তাদের থেকে আর কোনো পশুর মধ্যে সংক্রমণ না ছড়িয়ে পড়ে তার জন্য তাদের আলাদা করে রাখা হয়েছে। মানুষের মতো একই চিকিৎসা চলছে তাদের। পাশাপাশি ভাইরাল লোড যাচাইয়েরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।

পশুদেহে সংক্রমণের প্রমাণ মেলায় পোষা প্রাণীদের দেহে করোনা হতে পারে কিনা তা নিয়ে গবেষণা চলছে। তবে নয়াদিল্লির প্রাণী বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বিপিন শর্মার মতে, সে সম্ভাবনা কম। কারণ কুকুর এবং বিড়ালের অসম্ভব রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা।

তার মতে, কুকুর-বিড়ালের সহজাত এবং অর্জিত রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খুবই শক্তিশালী। তাই এই ভাইরাস তাদের শরীরে প্রবেশ করলেও প্রভাব ফেলতে পারেনি এখনও পর্যন্ত। যার জন্য মানুষের সংস্পর্শে থাকা সত্ত্বেও তারা সংক্রামিত হচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন