চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হাল ধরে থাকা মুমিনুলও সাজঘরে

বিপর্যয়ের মধ্যে মুমিনুল হক একাই টানছিলেন দলকে। ব্যক্তিগত ৭০ রানে আউট হয়ে গেছেন বাংলাদেশ অধিনায়কও। তাতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের একমাত্র টেস্টে বেশ চাপে রয়েছে টিম টাইগার্স। দলীয় দেড়শ রানের আগেই সাজঘরে ফিরে গেছেন ছয় ব্যাটসম্যান।

হারারেতে বাংলাদেশ দিনের প্রথম সেশন শেষ করেছিল ৭০ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে। চা-বিরতির আগে আরও ৩ উইকেট হারিয়েছে সফরকারীরা। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৪০ রান।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

মুশফিকুর রহিম ১১, সাকিব আল হাসান ৩ ও মুমিনুল ফিরেছেন ৭০ রানের ইনিংস খেলে। লাঞ্চ বিরতির পর মুশফিক আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে এলবিডব্লিউ হন।

মুজারাবানির বল লাগে মুশফিকের থাই প্যাডে। টেলিভিশন রিপ্লেতে দেখা যায় স্টাম্পের উপর দিয়েই যেত সেটি। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অবাক হয়েছেন মুশফিকও। কিন্তু রিভিউ না থাকায় দুর্ভাগ্য মেনে নিতে হয় তাকে।

বিজ্ঞাপন

পরের ওভারে সাকিব ক্যাচ দেন উইকেটের পেছনে। জোড়া ধাক্কায় চাপে পড়ে বাংলাদেশ। একাই লড়ে যাওয়া মুমিনুলের আউটে বিপদ আরও বেড়েছে।

শুরুর জোড়া ধাক্কা সামলে নিয়েছিলেন সাদমান ইসলাম ও মুমিনুল। জুটি গড়ে দেখাচ্ছিলেন পথ। সেই লড়াই খুব দীর্ঘ হয়নি। লাঞ্চ বিরতির খানিক আগে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান সাদমান।

তাদের তৃতীয় উইকেট জুটিতে আসে ৬০ রান। রিচার্ড এনগ্রাভার ইনসুইং ডেলিভারিতে ডিফেন্স করতে গিয়ে প্রথম স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা ব্রেন্ডন টেলরের তালুতে ক্যাচ দেন সাদমান। আউট হওয়ার আগে বাঁহাতি ওপেনার ৬৪ বলে চারটি চারের সাহায্যে করে যান ২৩ রান।

সকালে ব্যাট করতে নেমে জিম্বাবুয়ের পেস আক্রমণের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি বাংলাদেশের টপঅর্ডার। ব্লেসিং মুজারাবানির পেস-বাউন্স সামলাতে হিমশিম খেতে হয়েছে ব্যাটসম্যানদের।

ওপেনার সাইফ হাসান বোল্ড হয়ে ফেলেন শূন্য রানে। তিনে নেমে নাজমুল হোসেন শান্ত ২ রানের বেশি করতে পারেননি। মুজারাবানির বলেই তৃতীয় স্লিপে ক্যাচ দেন এ বাঁহাতি। বাংলাদেশের সংগ্রহ তখন ৮ রান।