চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে ওর নাম: আকবর আলীর বাবা

যুব বিশ্বকাপ জয়ী বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক আকবর আলী তার বড় দুই ভাইয়ের অনুপ্রেরণায় হাতে তুলে নেন ব্যাট-বল। এমন বিশাল সাফল্যে খুশি তার পরিবারের সদস্যরাও। তাদের চাওয়া অচিরেই জাতীয় দলে খেলবে আকবর।    

রংপুরের পশ্চিম জুম্মাপাড়ার বাসিন্দা আকবরের একমাত্র বোনের মৃত্যুকে ঘিরে শোক বইলেও সেই শোককে শক্তিতে পরিণত করে পরিবারের সদস্যরা আনন্দে সামিল হয়েছে। নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সর্ব কনিষ্ঠ সন্তান আকবরকে নিয়ে এখন তাদের নতুন স্বপ্ন, নতুন প্রত্যাশা।

ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশের নাম আরও উচুঁতে তুলে ধরা আকবর আলীর বাবা মো. মোস্তফা ছেলের এমন সাফল্যের কথা তুলে ধরেন বলেন, ‘এটা দেশের জন্য গর্ব।  তার নেতৃত্বে চ্যাম্পিয়ন দেশ, এটা আমাদের জন্য যেমন খুশির, দেশের জন্যও সুনামের।

‘‘সেটা আমি ভাষায় বোঝাতে পারবো না। বিকেএসপির যেসব কোচ ছিলেন, তারা অনেক কষ্ট করেছেন। বোর্ডও কষ্ট করেছে। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী – তিনি তো ক্রিকেটকে অনেক ভালোবাসেন। মুজিববর্ষে এই প্রাপ্তি ইতিহাস হয়ে থাকবে। আর আকবর আলীর নাম থাকবে স্বর্ণাক্ষরে লেখা।’’ 

বিজ্ঞাপন

আকবর আলীর বাবা মোঃ মোস্তফা এবং মা শাহিদা বেগম

ছেলের সাফল্যে গর্বিত মা শাহিদা বেগম বলেন, ‘বোনর মৃত্যুর সংবাদ শোনার পরও সে যেভাবে খেলেছে, তার জন্য আল্লাহ পাকের দরবারে শুকরিয়া। আশাকরি ভবিষ্যতে ও জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পাবে।’ 

‘‘আমাদের ইচ্ছা ও জাতীয় দলে খেলুক, আরও উপরে উঠুক। দেশবাসীর প্রত্যাশা পূরণ করুক। ওর এক ভাই আলেম পড়তো, ওকেও (আকবর) ভর্তি করেছিলাম। পরে ওর বড় ভাই (মুরাদ) বললো, আমিও ক্রিকেট খেলতাম; পরে খেলতে পারিনি। ওর যেহেতু ইচ্ছে আছে, ও খেলুক। পরে ওর বড় ভাই আর মেজ ভাই পরামর্শ করে ক্রিকেটে ভর্তি করে।’’ 

এই সাফল্য পুরো দেশবাসীর উল্লেখ করে আকবরের বড় ভাই মুরাদ হোসেন বলেন, ‘এটা তো আকবরের একার জয় নয়, পুরো দেশবাসীর জয়। এ পাওয়া আকবরের একার নয়, পুরো দেশবাসীর পাওয়া।’

বিজ্ঞাপন