চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সুশান্তকে ‘খুন’ করা হয়েছে, রিয়াকে গ্রেপ্তারের আবেদন 

‘রিয়া চক্রবর্তী আমার ছেলেকে দীর্ঘদিন ধরে বিষ দিচ্ছিল। রিয়া একজন খুনি। তদন্তকারী সংস্থার অবিলম্বে তাকে এবং তার সহকারিদের গ্রেপ্তার করা উচিত।’

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্যে প্রায় প্রতিদিনই যোগ হচ্ছে চাঞ্চল্যকর নানা তথ্য। শুরু থেকেই সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীকে অভিযুক্ত বলে আসলেও এবার তাকে সরাসরি খুনের সঙ্গে জড়িত বলে মন্তব্য করলেন সুশান্তের বাবা কে কে সিং।

মূলত রিয়া চক্রবর্তীর একটি সোশাল বার্তার পরই এমন অভিযোগ করেন ছেলে হারানো কে কে সিং।

বিজ্ঞাপন

রিয়াকে দ্রুত গ্রেপ্তারের আহ্বান জানিয়ে তিনি এক ভিডিও বার্তায় বলেন, রিয়া চক্রবর্তী আমার ছেলেকে দীর্ঘদিন ধরে বিষ দিচ্ছিল। রিয়া একজন খুনি। তদন্তকারী সংস্থার অবিলম্বে তাকে এবং তার সহকারিদের গ্রেপ্তার করা উচিত।

বিজ্ঞাপন

কে কে সিংয়ের ‘বিষ দিচ্ছিল’ কথাটিকে তার আইনজীবী ব্যাখ্যা দেন এভাবে। তিনি বলেন, ‘বিষ’ অর্থে সুশান্তের বাবা বলতে চেয়েছেন ড্রাগের কথা। এই আইনজীবী আগেও জানিয়েছেন, পরিবার প্রথমে ভেবেছিল প্রেসক্রাইব করা ওষুধের ওভারডোজের কারণে সুশান্তের মৃত্যু হয়েছে। তবে রিয়ার মাদক গ্রহণ সংক্রান্ত খবর সামনে আসার পর গোটা ঘটনা পাল্টে যায়। রিয়া যে নিষিদ্ধ ড্রাগেরও ব্যবহার করত সে সম্পর্কে পরিবারের কোনও ধারণাই ছিল না।

এদিকে ড্রাগের সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়ে সুশান্তের বোন টুইটে জানান, গত দুই দিনে মিডিয়া যা কিছু তথ্য সামনে এনেছে তাদের তদন্তে স্পষ্ট- রিয়া এবং গ্যাং সুশান্তকে ড্রাগ দিত এবং তাকে অচৈতন্য করে রাখত মাসের পর মাস, যাতে ওকে সহজে কন্ট্রোল করে রাখতে পারে। আর্থিকভাবে ওকে নিঃস্ব করবার চেষ্টা করেছে। পরিবারের সদস্যরা যাতে তার সঙ্গে দেখা না করতে পারে সেই ব্যবস্থাও করেছে রিয়া। যাতে কোনওভাবেও আমরা তাকে (সুশান্ত) উদ্ধার না করতে পারি।

তিনিও অবিলম্বে রিয়াকে গ্রেপ্তার করার আবেদন জানান। এদিকে সামাজিক মাধ্যমে রিয়ার বার্তা প্রকাশের পর সুশান্তের বোন আরো একটি টুইটে জানান, ভারত সরকারের এই বিষয়টি দেখা উচিত যাতে একজন মূল অভিযুক্ত কোনওভাবেই এইভাবে পাবলিসিটি স্টান্টের জন্য সাক্ষাত্কার দিতে না পরে। গ্রেপ্তার করা হোক রিয়াকে।