চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাউথ কোরিয়ায় স্মার্ট কৃষিকে সামনে রেখে উচ্চতর গবেষণা

২০২২ সালের মধ্যে কৃষিকে ২০ ভাগ স্মার্ট প্রযুক্তির আওতায় আনতে চায় সাউথ কোরিয়া। সেই লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে সেদেশের বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান। চুংবুক ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে চলছে মাটির বিভিন্ন উপাদান উন্নয়ন বিষয়ে উচ্চতর গবেষণা।

কোরিয়ার কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো নড়েচড়ে বসেছে ২০২২ সালের লক্ষ্যকে সামনে রেখে।

বিজ্ঞাপন

দেশটি সামগ্রিক কৃষিতে স্মার্ট ফার্মিংয়ের সম্প্রসারণ ঘটাতে চায়। এর অংশ হিসেবে সারাদেশে মূল কৃষি ও মাচ চাষে অন্তত: ২০ ভাগ এই প্রযুক্তি সম্প্রসারণের লক্ষ্য রয়েছে। প্রাণিসম্পদ খাতে এই হারটি ধরা হয়েছে ২৫ ভাগ।

এই লক্ষ্যের সঙ্গে যুক্ত করে জলবায়ু পরিবর্তনসহ যুগপযোগী কৃষি গবেষণাকে সামনে রেখে এগিয়ে যাচ্ছে সেদেশের উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। চুংবুক ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কৃষি ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগে চলছে মাটির স্বাস্থ্য নিয়ে বহুমুখি উচ্চতর গবেষণা।

বিজ্ঞাপন

কৃষি ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. টং মিন সা বলেন, ‘আমরা দেখছি রাসায়নিক সার ব্যবহারের কারণে মাটির মাইক্রোঅর্গানিজমের হারের যে পরিবর্তন হচ্ছে সে বিষয়গুলো। নতুন ধরনের বায়ো ফার্টিলাইজারের মাধ্যমে কীভাবে মাটির হারানো শক্তি ফিরিয়ে আনা যায়, সেটি আমাদের গবেষণার গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।’

সেখানে সুগভীর বিষয়গুলো নিয়ে গবেষণা করছেন বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষার্থীরা।

কোরীয় কৃষি মন্ত্রণালয়ের এখন বড় লক্ষ্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারে কৃষিকে বহুমুখিভাবে লাভজনক করে তোলা।

সাউথ কোরিয়ার খাদ্য ও গ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক পার্ক সু জিন বলেন, ‘আমরা কৃষিতে আইসিটির ব্যবহার ব্যাপকভাবে বাড়ানোর জন্য কাজ করছি। বিশেষ করে আধুনিক ও বিশেষায়িত গ্রিন হাউজে বিশেষ ব্যবস্থায় ফসল উৎপাদনের দিকে জোর দেয়া হয়েছে। ২০২২ সালের মধ্যে ১০ হাজার হেক্টরে গ্রিন হাউজ সম্প্রসারণের চিন্তাভাবনা রয়েছে। যার ৭৫ ভাগই পরিচালিত হবে স্মার্ট প্রযুক্তিতে।’

Bellow Post-Green View