চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সমানতালে ছুটছেন তামিম-মুশফিকরা

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টুয়েন্টি আসরে সমানতালে ছুটছে তামিম ইকবালের প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ও মুশফিকুর রহিমের আবাহনী লিমিটেড। নবম রাউন্ড শেষে দুই দলেরই পয়েন্ট সমান ১৪।

রান রেটে কিছুটা এগিয়ে থাকায় শীর্ষে প্রাইম ব্যাংক। আবাহনী রয়েছে দুই নম্বরে। সোমবার দুদলই পেয়েছে সহজ জয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সকালে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাবকে ২২ রানে হারায় প্রাইম ব্যাংক। রনি তালুকদারের (৫৪) ফিফটিতে ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৭ রান তোলে দলটি। অধিনায়ক তামিম করেন ২৫ রান।

রাকিবুল হাসান ও আসাদুজ্জামান পিয়াল নেন দুটি করে উইকেট।

জবাবে ২০ ওভারে ১২৫ রানে গুটিয়ে যায় ওল্ড ডিওএইচএস। মাহমুদুল হাসান জয় সর্বোচ্চ ২৬ রান করেন।

বিজ্ঞাপন

প্রাইম ব্যাংকের বাঁহাতি পেসার শরিফুল ইসলাম নেন তিন উইকেট। দুটি করে উইকেট নিয়েছেন। মনির হোসেন, অলক কাপালি ও নাহিদুল ইসলাম।

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে দুপুরের ম্যাচে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে ৪৯ রানের বড় ব্যবধানে হারায় আবাহনী।

মুনিম শাহরিয়ারের ৪০ বলে ৭৪ ও নাজমুল হোসেন শান্তর ৪২ বলে ৬৫ রানের অপরাজিত ইনিংসে ১৮.২ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮১ রান তোলে আবাহনী। বৃষ্টির কারণে আর ব্যাটিং করা হয়নি আকাশী-নীলদের।

ডাকওয়ার্থ ও লুইস মেথডে শেখ জামালের লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৩ ওভারে ১৪৮। একশ রানও তুলতে পারেনি তারা। ৮ উইকেট হারিয়ে ৯৮ রানে থামে শেখ জামাল।

এনামুল হক ২৯ ও অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান করেন ২২ রান।

এক ওভারে তিন উইকেট নিয়ে প্রতিপক্ষ দলের ব্যাটসম্যানদের চড়াও হতে দেননি আবাহনীর তরুণ পেসার মেহেদী হাসান রানা। আরাফাত সানি নেন দুটি উইকেট।