চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘সংলাপে বসতে যোগ্যতা লাগে’

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এক বিবৃতিতে জাতীয় সংলাপ করার যে আহ্বান জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের তা নাকচ করে দিয়েছেন।

শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনী মিলনায়তনে ডিআরইউয়ের সদস্য লেখকদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আজকের পৃথিবীতে সংলাপে বসতে হলে যোগ্যতা লাগে। যোগ্যতা ছাড়া সংলাপ হয় না। আন্দোলন করার যাদের শক্তি নেই, তারাই এখন ঘন ঘন সংলাপের কথা বলে।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সংলাপের প্রস্তাবে অনাগ্রহ প্রকাশ করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় সংলাপ এভাবে হবে না। সংলাপ করতে হলে পরিবেশ রাখতে হবে। কারা লেখক, পুলিশ, বিদেশী হত্যা করছে? এভাবে কি সংলাপের পরিবেশ হয়? যোগ্যতা, শক্তি, সাহসের প্রমাণ দিতে হয়। সংলাপের জন্য যোগ্যতা, সাহস লাগে। সেটা তারা কি দেখাতে পেরেছে? তাদের সঙ্গে সংলাপ করবো, তারা কে? বিদেশের মাটিতে বসে সংলাপ হয় না।

বিজ্ঞাপন

যারা সংলাপ চায় তারা সংলাপের পরিবেশ রাখে উল্লেখ করে সেতু মন্ত্রী বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত কথার ঢিল ছুড়ছি। প্রতিনিয়ত শব্দবোমা নিক্ষেপ করছি। এ শব্দবোমা কিন্তু অনেক সময় আত্মঘাতী বোমা। আজকে সবাই ঢিল ছুড়ছেন, কেউ কাছে থেকে, কেউ দূরে থেকে। কেউ আটলান্টিকের কাছ থেকে, কেউ টেমস নদীর পাড় থেকে।

খালেদা জিয়ার দেশে ফেরায় বিলম্বকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, যাই যাই করে যাওয়া হয় না, আসি আসি করে, আসা হয় না। এখন দেশে একটা প্রশ্নবোধক চিহ্ন, কবে আসবেন? কিন্তু ঢিল ছোড়া বন্ধ হয়নি। বিদেশের মাটিতে বসে বিক্ষিপ্ত ঢিল ছুড়ে, দেশে কি সরকার পরিবর্তন সম্ভব?

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকার পরিবর্তন নির্বাচনের মধ্য দিয়ে হবে। সরকার পরিবর্তন আন্দোলনের মধ্য দিয়ে হবে। সেই আন্দোলন করার শক্তি যাদের নেই। তারা এখন ঘন ঘন সংলাপের কথা বলে। সরকার পরিবর্তনের কথা বলছে।

ডিআরইউয়ের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশার সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সংসদের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়-সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলাম, ডিআরইউয়ের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন, সহসভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ। সংবর্ধনা অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ডিআরইউয়ের কল্যাণ সম্পাদক শাহনাজ শারমিন।

Bellow Post-Green View