চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সংগীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলীর অবস্থা সংকটাপন্ন

দেশের প্রখ্যাত সংগীত পরিচালক, সুরকার ও গীতিকার আলাউদ্দিন আলীর অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছেন তার পরিবার। বর্তমানে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে আছেন তিনি।

গণমাধ্যমকে তার চিকিৎসক জানিয়েছেন, আগামি ২৪ ঘন্টা আলাউদ্দিন আলীর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ সময়। তীব্র শ্বাসকষ্ট আছে। এমন অবস্থায় দ্রুত তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। এখনও রক্তচাপ, হৃৎস্পন্দন স্বাভাবিক না। ফুসফুসের একটা অংশ পুরোপুরি নিমোনিক। সব মিলিয়ে বলা যায়, উনার অবস্থা মোটেও ভালো না।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার দিবাগত রাত থেকেই কিংবদন্তী এই সুরকারের শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে থাকে। শেষ পর্যন্ত শনিবার ভোরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। স্বামীর জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন স্ত্রী ফারজানা আলী মিমি।

বিজ্ঞাপন

এরআগে টানা তিনমাস থাইল্যান্ডে ক্যানসারের চিকিৎসা শেষে চলতি বছরের জানুয়ারিতে দেশে ফেরেন আলাউদ্দিন আলী। এরপর থেকে কিছুটা স্থিতিশীলই ছিলো তার শারীরিক অবস্থা।

স্ত্রী ফারজানা আলী মিমির সঙ্গে আলাউদ্দিন আলী

গেল জুন মাসেও চ্যানেল আই অনলাইনের কাছে আশাবাদ জানিয়ে স্ত্রী ফারজানা আলী মিমি জানিয়েছিলেন, ‘নিজের শারীরিক অবস্থা খুব ভালো নয়, প্রতিদিনই থেরাপি দিতে হচ্ছে। তবু এই অবস্থার মধ্যেও তিনি সাতটি গান লিখে ফেলেছেন। তারমধ্যে দুটি গানের সুরও করেছেন (শুধু মুখটার সুর দিয়েছেন)। এমনকি এই সময়ে করোনা নিয়েও একটি গান লিখে ফেলেছেন!’

এ পর্যন্ত ৮ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন আলাউদ্দিন আলী। তার সুর করা গানের সংখ্যা ৫ হাজারেরও বেশি। এরমধ্যে কালজয়ী কিছু গান হচ্ছে ও আমার বাংলা মা তোর, সূর্যোদয়ে তুমি সূর্যাস্তেও তুমি ও আমার বাংলাদেশ, বন্ধু তিন দিন তোর বাড়ি গেলাম দেখা পাইলাম না, যেটুকু সময় তুমি থাকো কাছে, মনে হয় এ দেহে প্রাণ আছে, প্রথম বাংলাদেশ, আমার শেষ বাংলাদেশ, এমনও তো প্রেম হয়, চোখের জলে কথা কয়, আছেন আমার মুক্তার, আছেন আমার ব্যারিস্টার, জন্ম থেকে জ্বলছি মাগো, ভালোবাসা যত বড় জীবন তত বড় নয়।