চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শুক্রবার শিল্পকলায় ‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা ও ৮টায় আশীষ খন্দকারের নির্দেশনায় ‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’ এর দুই প্রদর্শনী…

শুক্রবার (৫ নভেম্বর) বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির স্টুডিও থিয়েটার হলে প্রদর্শিত হতে যাচ্ছে ‘স্পেস অ্যান্ড অ্যাক্টিং রিসার্চ সেন্টার’-এর ৩৯ ও ৪০ তম প্রযোজনার (পেন্ডামিক ভার্সন) ‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’।

নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন অভিনেতা ও নির্দেশক আশীষ খন্দকার। ৪০ মিনিটের এই মঞ্চ নাটকটির একটি নয়, এদিন সন্ধ্যা ৭টা ও রাত ৮টায় হবে দুটি শো।

নাটকে দুই আগন্তুক চরিত্রে দেখা যাবে ফরহাদ শাওন ও রাব্বীকে। আর বান্দ্রা চরিত্রে দেখা যাবে মানিসা অর্চিকে।

বিজ্ঞাপন

নাটকটির পটভূমি নিয়ে আশীষ খন্দকার বলেন, ‘একদিন আমি আমার মেয়ে মৃন্ময়ীর সাথে বসে ছিলাম। সে তেল রং-এ একটা ছবি আঁকছিল, দুটো লোক অন্ধকারে হেঁটে চলেছে। সেখান থেকেই এই নাটকটির বীজ আমার মাথায় আসে। অনেকটা সময় গবেষণার পর ঐ ছোট্ট একটা বীজ থেকে ‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’ নাটকের পটভূমী দাঁড় করিয়েছি।’

তিনি বলেন, ঐদিন আমি অবাক হয়ে মৃন্ময়ীর ব্যাখ্যাটা শুনছিলাম, ও রূপকথার গল্প থেকে এই চরিত্রদুটো এঁকেছে আর অদ্ভুদ্ভাবে এই গল্প প্রাচ্য-পাশ্চাত্যে যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকা চিরাচরিত রূপকথার গল্প। যে গল্পটা আবার ঘুরিয়ে দেখলে আমরা দেখতে পাই আমাদের এই ঘুনে ধরা, পঁচাগলা বাস্তবতা।

আশীষ খন্দকার জানান, রূপকথার চিরায়িত চরিত্রগুলো অন্যরকমভাবে মঞ্চে উঠে আসবে। এর চরিত্রগুলো যেন প্রাচ্য-পাশ্চাত্যে যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকা চিরাচরিত রূপকথার গল্প। যে গল্পটা আবার ঘুরিয়ে দেখলে দেখতে পাওয়া যায়, বর্তমানেও এই ঘুণে ধরা, পঁচা গলা বাস্তবতা আছে। এর রূপকগুলো মঞ্চে প্রাণ পায় অভিনেতার বিভিন্ন কার্যকলাপে।

‘স্পেস অ্যান্ড অ্যাক্টিং রিসার্চ সেন্টার’ নিয়মিতই ‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’ নাটকটি করে আসছে। আশীষ খন্দকার জানান, নাটকটি দেখতে আগ্রহীরা অনলাইনেও টিকিট বুকিং দিতে পারবেন।

বিজ্ঞাপন