চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শপথের আগেই নতুন সিইসিকে পদ থেকে সরতে বললেন রিজভী

বর্তমান নির্বাচন কমিশন দিয়ে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য ও প্রভাবমুক্ত নির্বাচন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করে প্রধান নির্বাচন কমিশনারে (সিইসি) পদত্যাগের দাবি জানালেন বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী। সিইসি হিসেবে সাবেক সচিব কে এম নূরুল হুদাকে নিয়োগ দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ, যদিও তিনি এখনও দায়িত্বগ্রহণ করেন নি।

বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইলে শহীদ মির্জা আবু রায়হান জগলুর ৩০তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্বরণসভা শেষে সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন রুহুল কবীর রিজভী।

বিজ্ঞাপন

রিজভী বলেন, নির্বাচন কমিশনের যিনি প্রধান হয়েছেন, তার সঙ্গে সরকারের ঘনিষ্ঠ সর্ম্পক রয়েছে। তিনি জনতার মঞ্চের লোক ছিলেন। যারা শৃংঙ্খলা ভঙ্গ করে তাদের পক্ষে নিরপেক্ষ কাজ করা কঠিন। সার্চ কমিটির সুপারিশ গ্রহণ না করে বেছে বেছে বর্তমান সরকার ও দলের অনুগত লোকদের নিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে, তা তীব্র হওয়ার আগেই তার এ পদ থেকে সরে যাওয়া উচিৎ বলেও মনে করেন তিনি।

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি খন্দকার রাশেদুল আলমের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক সরফত আলী সপু, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (ঢাকা বিভাগ) আব্দুস সালাম আজাদ ও শহীদুল ইসলাম বাবলু ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম তোফাসহ অনেকে।

সিইসি হিসেবে সাবেক সচিব কে এম নূরুল হুদাসহ নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন সাবেক সচিব রফিকুল ইসলাম, সাবেক অতিরিক্ত সচিব মাহবুব তালুকদার, ব্রি. জে. (অব.) শাহাদৎ হোসেন চৌধুরী ও সাবেক জেলা ও দায়রা জজ কবিতা খানম। তারা আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি শপথ নেবেন।

বিজ্ঞাপন