চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লেজের প্রতিরোধে ব্রিসবেনে ভারতের একটি সুখী দিন

ষষ্ঠ উইকেট পড়ে গেছে ১৮৬ রানে। বলতে গেলে সেটি স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের শেষ জনের উইকেট ছিল। মুখে হাসি চওড়া হয়ে পড়া অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের এরপরই দীর্ঘ বিষাদে ডুবিয়েছে ভারতের সপ্তম উইকেট জুটি। শার্দূল ঠাকুর ও ওয়াশিংটন সুন্দরের শতরান পেরনো সেই জুটিতে ব্রিসবেন টেস্টে লড়াই জমিয়ে তুলেছে ভারত।

সিরিজে ১-১এ সমতা নিয়ে ব্রিসবেনে নেমেছে দুদল। রোববার সিরিজের চতুর্থ, তথা শেষ টেস্টের তৃতীয় দিনে ভারতের টেলের প্রতিরোধে টক্কর দেয়া একটা দিনের মুখে পড়েছে অস্ট্রেলিয়া।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

প্রথম ইনিংসে স্বাগতিকরা অলআউট হয়েছিল ৩৬৯ রানে। জবাব দিতে নেমে লেজের দিকের ব্যাটসম্যানদের প্রতিরোধে অলআউট হওয়ার আগে প্রথম ইনিংসে ৩৩৬ রান তুলেছে ভারত। প্রথম ইনিংস থেকে ৩৩ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে অজিরা।

দিনের শেষ ঘণ্টায় নেমে লিড বাড়িয়ে ৫৪ করেছে অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় ইনিংসে কোনো উইকেট না হারিয়ে ২১ রানে দিন শেষ করেছে। ডেভিড ওয়ার্নার ২০ ও মার্কাস হ্যারিস ১ রানে চতুর্থ দিনে লিড বাড়াতে নামবেন।

বিজ্ঞাপন

রোহিত শর্মা ৪৪ করে আগেরদিনই ফিরে গেছেন, শুভম গিলের নামের পাশে ৭ রান। চেতেশ্বর পূজারা ২৫, অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে ৩৭, মায়াঙ্ক আগারওয়াল ৩৮, রিশভ পান্ট ২৩ করে সাজঘরে হাঁটা দিয়েছেন পরেরদিন। কেউই ইনিংস টানতে পারেননি খুব দরকারের মুহূর্তে।

স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের সেই না পারার ব্যর্থতা মুছে দিতেই যেন দৃঢ় সংকল্পে যুক্ত হন শার্দূল ও ওয়াশিংটন। দুজনে সপ্তম উইকেটে ১২৩ রান যোগ করেছেন, ব্যাট করেছেন ৩৬ ওভার।

প্যাট কামিন্সের বলে ৬৭ করে শার্দূলের বিদায়ে ভাঙে জুটি। ততক্ষণে তিনশ পেরিয়ে গেছে ভারতের সংগ্রহ। ৯ চার ও ২ ছয়ে ১১৫ বলে প্রথম টেস্ট ফিফটি তুলেছেন মাত্র দ্বিতীয় টেস্টে নামা ২৯ বছর বয়সী ডানহাতি মিডিয়াম পেসার। প্রথম শ্রেণি ও লিস্ট-এ ক্রিকেটে যথাক্রমে তার ব্যাটিং গড় ১৬ ও ১৩ করে।

কিছুক্ষণ পর ফিরে যান অভিষিক্ত ওয়াশিংটনও। তার অবদান ৬২। ৭ চার ও এক ছয়ে ১৪৪ বলের ইনিংস খেলেছেন ২১ বছর বয়সী বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ও ডানহাতি অফব্রেক বোলার। তাকে ফিরিয়েছেন স্টার্ক, গ্রিনের ক্যাচ বানিয়ে। মূলত বোলার হিসেবে দলে এলেও ব্যাটিংটা তিনি মোটামুটি পারেন। প্রথম শ্রেণি ও লিস্ট-এ ক্রিকেটে তার ৩১ আর ২০-এর উপর গড় সেটাই বলে।

জস হ্যাজেলউড ৫ উইকেট নিয়ে অজিদের সেরা। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্স। অন্য উইকেটটি গেছে নাথান লায়নের ঝুলিতে।