চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লালমনিরহাটের তিন উপজেলায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দী

হঠাৎ তিস্তার পানি বেড়ে ‘ফ্লাড বাইপাস’ ভেঙ্গে লালমনিরহাটের তিন উপজেলায় ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। এতে অন্তত ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

স্থানীয়রা বলছে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই তিস্তা ব্যারেজের বিপৎসীমার ৩০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়ে কৃষি ফসলের। ঘর-বাড়িতে পানি প্রবেশ করায় পরিবারগুলো উঁচু স্থানে ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নিয়েছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষের অবহেলায় ‘ফ্লাড বাইপাস’ ভেঙ্গেছে।

বিজ্ঞাপন

পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় লালমনিরহাটের পাটগ্রামের দহগ্রাম, হাতীবান্ধার গড্ডিমারী, সিঙ্গামারি, সিন্দুর্না, পাটিকাপাড়া, ডাউয়াবাড়ী, কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী, শৈলমারী, নোহালী,চর বৈরাতি, আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা, গোবর্ধন,চন্ডিমারী ও লালমনিরহাট সদর উপজেলার গোকুন্ডা, খুনিয়াগাছ, রাজপুর-সহ তীরবর্তী এলাকায় পানি প্রবেশ করে প্রায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

বুধবার রাতে পানির প্রবল শ্রোতে কাকিনা-মহিপুর-রংপুর সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ায় লালমনিরহাট থেকে রংপুরের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর বলেছেন, তিস্তাার পানি বাড়ায় অনেক ঘর-বাড়ি ও ফসলি জমি নদীতে বিলীন হচ্ছে। পানিবন্দী হয়ে পড়া পরিবারগুলোর সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখা হচ্ছে। তাদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন