চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

লকডাউনে নিয়ম ভেঙে শুটিং করিনি: লিখিত বিবৃতিতে উর্মিলা

লকডাউনের ঘোষণা অমান্য করে কেউ কেউ নাটক নির্মাণ ও অভিনয়ে যুক্ত হচ্ছেন বলে অভিযোগ…

Nagod
Bkash July

করোনা সংক্রমণ এড়াতে ২২ মার্চ থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য সবধরনের শুটিং বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয় দেশের ছোটপর্দার সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলো। কিন্তু এই ঘোষণা অমান্য করে কেউ কেউ নাটক নির্মাণ ও অভিনয়ে যুক্ত হচ্ছেন বলে অভিযোগ।

তেমনি একটি অভিযোগ উঠেছিলো লাক্স তারকা খ্যাত অভিনেত্রী ঊর্মিলা শ্রাবন্তীকরের নামে। শোনা গিয়েছিলো, লকডাউনের নিয়ম ভঙ্গ করে গোপনে ঈদের নাটকের শুটিং করছিলেন তিনি!

বিষয়টি শ্রাবন্তীর দৃষ্টিগোচর হলে তিনি গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়ে পুরো বিষয়টিকে ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট’ বলে দাবি করেছেন।

নিজের অবস্থান পরিস্কার করে উর্মিলা লিখিত বিবৃতি দিয়ে বলেন, যে বা যারা আমার সাথে কথা না বলেই আমার বক্তব্য ছাড়াই ‘গোপনে শুটিং করেছি’ বলে রটাচ্ছেন, তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন, মিথ্যা এবং মনগড়া।

এমন রটনার কারণে সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর কাছে হেয় করা হয়েছে বলেও প্রশ্ন রাখেন শ্রাবন্তী কর। তিনি বলেন, সবাই ফোন করে জানতে চাইছেন কেন আমি নিয়ম ভাঙলাম। অথচ আমি শুটিং করিনি। এটি পুরোপুরি মিথ্যে খবর।

ঘটনার বিস্তারিত জানিয়ে উর্মিলা শ্রাবন্তী কর আরও বলেন, আমি নাকি পূবাইলের হাস্নাহেনা শুটিং স্পটে সাত পর্বের একটি ধারাবাহিক নাটকে লুকিয়ে শুটিং করেছি! সত্যটা হলো আমাকে একটি নাটকের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু করোনার এই অসময়ের জন্য আমি কাজটি ফিরিয়ে দিয়েছি। তাছাড়া আমার মা গুরুতর অসুস্থ। আমি ছাড়া মায়ের দেখাশোনার দেখার কেউ নেই। তাকে ঘরে একা ফেলে রেখে আমি কেমন করে তিন চারদিনের জন্য নাটকের শুটিং করতে যাবো?

উর্মিলা জানান, একটু খোঁজ নিলেই সঠিক তথ্য পাওয়া যেত। যে হাস্নাহেনার কথা বলা হচ্ছে সেখানে কথা বললেও তারা নিশ্চিত করতো নাটকের শুটিং হচ্ছে কী না! হলে কে কে অভিনয় করছেন। কোনো যাচাই বাছাই ছাড়া যিনি বা যারা আমাকে নিয়ে মিথ্যে সংবাদটি ছড়িয়েছেন তারা কাজটি ঠিক করেননি।

BSH
Bellow Post-Green View
Bkash Cash Back