চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে ‘কাজ করবে’ চীন

রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে নিজেদের ‘গুডউইল’ কাজে লাগাতে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোই সমাধান উল্লেখ করে, বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের সঙ্গে এই ইস্যুতে কাজ করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন শি জিন পিং।

বিজ্ঞাপন

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক।

সফরের চতুর্থ দিনে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আনুষ্ঠানিক বৈঠক হয়। বিকেলে শেখ হাসিনা বেইজিংয়ের সরকারি কমপ্লেক্সে পৌঁছালে তাকে স্বাগত জানান চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং।

এরপর দুই দেশের মন্ত্রী ও উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে শুরু হয় বৈঠকের আনুষ্ঠানিকতা। দ্বিপাক্ষিক এই শীর্ষ বৈঠকে দুই দেশের চলমান সহযোগিতার সম্পর্ক এবং উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে আলোচনা হলেও মূল আলোচ্য ছিলো ‘রোহিঙ্গা সঙ্কট’।

বিজ্ঞাপন

বৈঠকের আলোচ্য বিষয় নিয়ে পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব।

সচিব জানান, ফিরে গেলে আবার অত্যাচার হবে, রোহিঙ্গাদের এই শঙ্কা কাটাতে চীনের প্রেসিডেন্টকে তাদের গুডউইল ব্যবহারের আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশ ও চীন একে অন্যের সত্যিকারের বন্ধু থাকবে- এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে শি জিন পিং এবং শেখ হাসিনার বৈঠক শেষ হয়েছে বলে জানান পররাষ্ট্র সচিব।

এর আগে বিকেলে স্থানীয় দিয়াওউনতাই রাষ্ট্রীয় গেস্ট হাউসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতকালে চীনের কমিউনিস্ট পার্টির প্রভাবশালী নেতা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সং তাও রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সুচি ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সঙ্গে তার দল কমিউনিস্ট পার্টি অব চায়না যোগাযোগ করবে বলে নিশ্চিত করেন।

এসময় তিনি বলেন, ‘সমঝোতার মাধ্যমে রোহিঙ্গা সংকটের সমাধানে আমরা অং সান সুচিসহ মিয়ানমারের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করবো।’

বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বার্ষিক সভায় যোগদান এবং চীনের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করার জন্য ৫ দিনের সরকারি সফরে এখন চীন রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।