চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রিয়াল তবু জিতেছে, বার্সা যেন খেলাই ভুলে গেছে

ধুঁকতে থাকা রিয়াল মাদ্রিদকে স্বস্তি এনে দিয়েছে প্রতিপক্ষের নিজেদের জালেই জড়িয়ে দেয়া গোল। পয়েন্ট হারানোর বৃত্ত থেকে বেরিয়ে এসেছে জিনেদিন জিদানের দল। কিন্তু বার্সেলোনাকে বাঁচাতে পারেনি কেউই। লিগে ব্যর্থতার বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছে রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যরা।

লা লিগায় শনিবার রাতে সেভিয়ার মাঠ থেকে ১-০ গোলের জয় নিয়ে ফিরেছে রিয়াল মাদ্রিদ। আর কাদিজের মাঠে ২-১ গোলে হেরে এসেছে বার্সেলোনা।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

প্রায় সোয়াযুগ পর লা লিগায় ফেরা দল কাদিজ। নিজ মাঠে আটকে দিয়েছে বার্সাকে। সবধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা তিন জয়ের স্মৃতি ছিল। সেটি কাতালানদের অনুপ্রেরণা হতে পারেনি। উল্টো ২৯ বছর পর বার্সাকে হারানোর স্বাদ পেয়েছে কাদিজ।

ম্যাচের অষ্টম মিনিটেই লিড নেয় স্বাগতিকরা। আলভারো জিমেনেস গোল আনেন বার্সার ডিফেন্সের ভুলভাল কাজে লাগিয়ে। প্রথমার্ধ শেষ হয় কাদিজের এগিয়ে থেকে।

বিজ্ঞাপন

মধ্যবিরতির পর ফিরে ম্যাচের ৫৭ মিনিটে ভাগ্যজোরে সমতা টানে বার্সা। মেসির ক্রসে প্রতিপক্ষ গোলমুখে শট নিয়েছিলেন আলবা। সেটি বিপদমুক্ত করতে যেয়ে স্বাগতিকদের পেদ্রো আলকালা নিজেদের জালেই বল ঠেলে দেন।

ম্যাচের ৬৩ মিনিটে ফের বিপদে বার্সা। লেংলে আর আলবার ভুল বোঝাবুঝির সুযোগ নিয়ে সুবিধাজনক জায়গায় বল পেয়ে লিড আনেন কাদিজের আলভারো নেগ্রেডো। সেটি টপকে জয় আনা তো দূরের কথা, মেসিরা প্রতিপক্ষের দ্বিতীয় গোলটিই আর শোধ দিতে পারেননি।

বার্সা যেখানে নিজেদের ভুলে খাবি খেয়েছে, একইরাতে নিজেদের শেষ তিন ম্যাচে জয়হীন রিয়াল মাদ্রিদ পূর্ণ তিন পয়েন্ট তুলেছে প্রতিপক্ষের মাঠে, প্রতিপক্ষের ভুলে।

নড়বড়ে খেলতে থাকা রিয়ালকে ৫৫ মিনিটে জয়সূচক গোলটি এনে দেন সেভিয়ার গোলরক্ষক ইয়াসিনে বোনৌ। বেনজেমা-মদির একটি জোড়াল আক্রমণ ঠেকাতে পারেননি বোনৌ, বল হাতের নাগালে পেয়েও শিশুসুলভভাবে পায়ে ঠেলে দেন নিজ জালেই। ওই গোলে জয় আসে রিয়ালের।

এই জয়ে ১১ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে স্প্যানিশ টেবিলের তিনে এখন রিয়াল। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনা ১৪ পয়েন্ট নিয়ে আছে সাতে।