চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

কাঁদলেন রিয়াজ, কড়া সমালোচনায় জায়েদ

বিজ্ঞাপন

শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ভোটাধিকার হারানো কিছু শিল্পীদের নিয়ে কেঁদেছেন সহ-সভাপতি প্রার্থী রিয়াজ। সোমবার রাতে ভাইরাল হওয়া রিয়াজের সেই কান্না দেখে কড়া সমালোচনা করলেন দুই বারের নির্বাচিত শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

২৮ জানুয়ারির আসন্ন নির্বাচনে তিনি আবারো একই পদে লড়ছেন নিপুণের বিরুদ্ধে। রিয়াজের কান্না দেখে সোমবার রাতে জায়েদ বলছেন, এই কান্না পুরাই মেকি ও হাস্যকর! এসব কারণে সাধারণ মানুষের কাছে এফডিসি ও শিল্পীরা সার্কাসে পরিণত হচ্ছেন।

pap-punno

চ্যানেল আই অনলাইনকে জায়েদ খান বলেন, রিয়াজ ভাই সম্মানিত একজন শিল্পী৷ তার কাছ থেকে এমনটা মোটেও আশা করিনি। তিনি এমনটা করবেন ধারণাতেও ছিল না।

এদিন হাউমাউ করে কাঁদতে কাঁদতে রিয়াজ বলেন, ভোটাধিকার হারানো এই মানুষগুলোর কান্না থামিয়ে মুখে হাসি ফিরিয়ে দিতে চাই। এই মানুষগুলোর মুখের দিকে তাকান। তাদের সাথে অন্যায় হয়েছে।

Bkash May Banner

রিয়াজের কান্নাকে কেন্দ্র করে জায়েদ বলেন, রমিজ উদ্দিন নামে একজনকে নিয়ে রিয়াজ ভাই কেঁদেছেন। অথচ ২০১৭ সালে এই রমিজ উদ্দিনের ভোটাধিকার বাতিলের কাগজে রিয়াজ ভাইয়ের স্বাক্ষর আছে৷ তাহলে কেন তিনি স্বাক্ষর করেছিলেন? সেই ফাইল আমার কাছে এখনো আছে। প্রয়োজন হলে দেখাবো।

জায়েদ বলেন, সহযোগী সদস্যদের সংখ্যা নিয়ে মামলা চলমান, কোর্টে বিচারাধীন। এই ইস্যুতে রিয়াজ ভাইয়ের এমনটা করা ঠিক হয়নি। আর দোষটা শুধু কেন আমাকে দিচ্ছেন?

জায়েদ খান আরও বলেন, শিল্পীদের অধিকার ও সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে সোচ্চার হওয়ার কারণে আমাকে ও আমার কমিটি নিয়ে আরও নোংরা রাজনীতি করা হবে। তবে আমি যেভাবে শিল্পীদের নিয়ে কাজ করেছি এভাবেই কাজ করে যাবো।

আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জায়েদ খানকে পলিটিক্স ও ষড়যন্ত্রের ফাঁদে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে উল্লেখ করে জায়েদ বলেন, শিল্পীরা ভোট দিলে আবার নির্বাচিত হবো। ভোটে হারলে ফলাফল মাথা পেতে নেব। তবে কোনো রাজনীতি আমাকে দমাতে পারবে না।

বিজ্ঞাপন

Bellow Post-Green View
Bkash May offer