চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রিজভীর মিথ্যাচারে ইবলিস শয়তানও লজ্জা পাবে: নানক

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন: বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর ক্রমাগত নির্লজ্জ মিথ্যাচার এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে এতে স্বয়ং ইবলিস শয়তানও লজ্জা পাবে।

শনিবার দুপুরে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের পক্ষে তিনি একথা বলেন।

নানক বলেন: রুহুল কবির রিজভী নয়াপল্টনে বসে প্রতিনিয়ত মিডিয়ার সামনে মিথ্যাচার করে চলেছেন। তার নির্লজ্জ মিথ্যাচার এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে, যা শুনলে স্বয়ং ইবলিস শয়তানও লজ্জা পেতে পারে।

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন: বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রবন্ধকার প্রমথ চৌধুরী বলেছেন, কোনো বিশেষ উদ্দেশ্যে মিথ্যাচার করলে, মিথ্যাচর্চা করলে তা উদ্দেশ্যবিহীন চর্চায় পরিণত হয়। আপনারা দেখেছেন আমাদের কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এবং জাতীয় কবি নজরুল ইসলামকে নিয়ে রিজভী কী ধরনের মিথ্যাচার করেছেন।

Advertisement

এসময় বিএনপি নেতাদের মিথ্যাচার থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়ে নানক বলেন: তার (রিজভী) উদ্দেশ্যবিহীন মিথ্যাচার করা অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। তার পক্ষে সত্যের পথে ফিরে আসা দুরুহ। তারপরও আমরা বিএনপি নেতা নেতৃবৃন্দকে আহ্বান জানাই, মিথ্যা পরিহার করে সত্যের পথে ফিরে আসুন।

বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট উৎসবমুখর নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করছে অভিযোগ করে তিনি বলেন: একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচার প্রচারণা শুরু হওয়ার পর থেকে দেশব্যাপী জনসাধারণের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। উৎসবমুখর পরিবেশে প্রচার-প্রচারণা চলছে। কিন্তু দেশবাসীর সঙ্গে সঙ্গে আমরা লক্ষ্য করছি, বিএনপি এবং ঐক্যফ্রন্ট নেতৃবৃন্দ মিডিয়ার সামনে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত লাগাতার মিথ্যাচার করে যাচ্ছে। উদ্দেশ্যমূলক মিথ্যাচার করে তারা রাজনৈতিক পরিবেশ উত্তপ্ত করার চেষ্টা করছে।

সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করছে বলেও এসময় সংবাদ সম্মেলন থেকে অভিযোগ করা হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেছেন: অনেকে রসিকতা করে বলেন যে, নজরুল এবং রবীন্দ্রনাথ বিএনপি করতেন! কারণ, কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ একটি উপন্যাস লিখেছিলেন ‘নৌকাডুবি’ আর কাজী নজরুল ইসলাম আমাদের জাতীয় কবি, তিনি কবিতা লিখেছিলেন, ‘আমরা শক্তি, আমরা বল, আমরা ছাত্রদল।’

পরক্ষণেই তিনি যোগ করেন: জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কথাটা উঠে এসেছে জাতীয় কবির হাত দিয়ে। আর ‘নৌকাডুবি’ উপন্যাসটা লিখেছেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। অতএব বাঙালির এই কীর্তিমান দুই শ্রেষ্ঠ পুরুষ তাদের হাত দিয়ে আগেই আওয়ামী বিরোধী চিন্তা ফুটে উঠেছিল। যদিও এটা রসিকতা করে বলা হয়, তবুও কিন্তু এখানে কিছু ইঙ্গিত পাওয়া যায়।