চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ছাত্র নিহত হওয়ার পর রাতে রাজধানীতে বেশ কিছু বাসে আগুন

রাজধানীর রামপুরায় অনাবিল পরিবহনের বাসের ধাক্কায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্যুর প্রতিবাদে ১০-১২টি গাড়ি ভাঙচুর ও আগুন দিয়েছে বিক্ষুদ্ধ জনতা। ঘাতক বাস চালক ও তার সহকারিকে আটক করেছে পুলিশ। দোষীদের বিচার দাবিতে গভীর রাত পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন এলাকাবাসী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর রামপুরায় রাস্তা পার হওয়ার সময় অনাবিল পরিবহনের দুই বাসের প্রতিযোগিতায় চাপা পড়ে প্রাণ হারান একরামুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র মাইনুল ইসলাম ওরফে মাইনুদ্দিন। শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার প্রতিবাদে ওই পরিবহনের বাসসহ ১০-১২টি গাড়ি ভাঙচুর করে আগুন দেয় বিক্ষুদ্ধ জনতা। দোষীদের বিচারের দাবিতে রাত প্রায় ২টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন এলাকাবাসী।

বিজ্ঞাপন

দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে সবার ছোট মাইনুদ্দিনের মৃত্যুতে পাগল প্রায় তার বাবা-মা। দুর্ঘটনাস্থলের একটু দূর থেকে যাত্রীদের সহায়তায় বাসচালক ও তার সহযোগীকে আটক করার কথা জনিয়েছে পুলিশ।

ডিএমপি আব্দুল আহাদ জানান, গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের অর্ধেক ভাড়া কার্যকরের দাবিতে যখন ছাত্র আন্দোলন চলছে ঠিক তখনই রামপুরায় এ দুর্ঘটনা ঘটল। হাফ ভাড়ার দাবিতে আজ বিআরটিএ কার্যালয় ঘেরাওয়ের কর্মসূচি রয়েছে শিক্ষার্থীদের

বিজ্ঞাপন