চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যে কারণে ফারুকীর ওয়েব সিরিজে নেই অভিনেত্রী তিশা

অভিনয় না করলেও ফারুকীর প্রথম ওয়েব সিরিজটি প্রযোজনা করেছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা…

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী নতুন কাজের ঘোষণা দেয়ার পর থেকেই আলোচনা হবে, এটা মোটামুটি স্বভাবসিদ্ধ! সেটা হোক টিভি ফিকশন কিংবা সিনেমা! তবে এবার একেবারে নতুন মাধ্যমে ফারুকী। প্রথমবার তিনি কাজ করছেন ওয়েবে। নির্মাণ করেছেন আট পর্বের ওয়েব সিরিজ ‘লেডিস এন্ড জেন্টলম্যান’।

যার ট্রেলার ইতোমধ্যে ট্রেন্ডিংয়ে। সোশাল মিডিয়ায় ট্রেলারটি শেয়ার করে প্রশংসা করছেন অনেকেই। চলচ্চিত্রের বিভিন্ন গ্রুপেও ‘লেডিস এন্ড জেন্টলম্যান’ এর প্রশংসা।

বিজ্ঞাপন

ট্রেলার প্রকাশিত হওয়ার আগে সিরিজটি নিয়ে মুখে একেবারে কুলুপ এঁটেছিলেন ফারুকীসহ সংশ্লিষ্ট সকলেই। তবে ট্রেলার প্রকাশের পর প্রচারণার অংশ হিসেবে সিরিজটির খুঁটিনাটি তুলে ধরছেন নিজ থেকেই। তারই ধারাবাহিকতায় সোমবার রাতে ছবিয়াল, তিশা ও ফারিণের ফেসবুকে একটি লাইভ আড্ডায় অংশ নেন নির্মাতা সরয়ার ফারুকীসহ বেশ কয়েকজন।

এরমধ্যে উপস্থিত ছিলেন ‘লেডিস এন্ড জেন্টলম্যান’ এর প্রযোজক নুসরাত ইমরোজ তিশা, রাশিয়ান বংশদ্ভূত আমেরিকান চিত্রগ্রাহক অ্যালেক্সি, সহ-প্রযোজক ইরেশ যাকের, সহ-পরিচালক মাহমুদ, সংগীতের দায়িত্বে থাকা পাভেল অরিণ সহ সিরিজের প্রধান চরিত্র ফারিণ, মারিয়া নূর ও পার্থ বড়ুয়া।

আড্ডা চলাকালীন একজন দর্শক প্রশ্ন রাখেন, ফারুকীর প্রথম ওয়েব সিরিজে কেন অভিনয় করলেন না তিশা? এমন প্রশ্নে এই অভিনেত্রী জানান, আমি এক সময়ে একটি দায়িত্ব ঠিকঠাক পালনে বিশ্বাস করি। যেহেতু সিরিজটি প্রডিউস করছি, তাই ওই বিষয়টির প্রতিই ফোকাস করতে চেষ্টা করেছি। যেহেতু আমার কাছে মনে হয়েছে, প্রডিউসিং আমার জন্য নতুন বিষয়, এবং ক্যামেরার পেছনে ওইভাবে কাজ করা হয়নি। তাই ভাবলাম, ঘর থেকে আগে প্রডিউসিং বিষয়টি প্রপারলি শিখে নিই। তারপরে না হয়, অভিনয় ও প্রযোজনা দুটো এক সাথে করা যাবে। এজন্যই একটা দায়িত্বেই ছিলাম।

এছাড়াও আরেকটি কারণ বলেন তিশা। জানান, মাঝখানে তিন মাস আমি ছিলাম মুম্বাইতে। আমার আরেকটি সিনেমা ‘বঙ্গবন্ধু’র কাজ চলছিলো সেসময়। এ কারণেও থাকতে পারিনি। সব কিছু মিলিয়েই করা হয়নি, বা এরকমটাই আসলে পরিকল্পনা ছিলো।

ওয়েব সিরিজটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন ফারিণ

প্রাণবন্ত এই আড্ডায় ওয়েব সিরিজটির পেছনের গল্পের স্মৃতিচারণ করেন সবাই। বিশেষ করে নির্মাতা ফারুকী মজা করে বলেন, ‘এই সিরিজটি করতে গিয়ে কেউ অর্জন করেছেন, আবার কেউ বর্জন করেছেন।’

খোলাসা করে এই নির্মাতা বলেন, ‘লেডিস এন্ড জেন্টলম্যান’ এর জন্য ফারিণ যেভাবে নিজেকে প্রস্তুত করেছেন, এটা অভাবনীয়। এমনকি তাকে এই সিরিজের মূল চরিত্রে অভিনয়ের জন্য ৯ কেজি ওজন অর্জন করতে হয়েছে। অন্যদিকে পার্থ দাকে (পার্থ বড়ুয়া) তার চুল বর্জন করতে হয়েছে। প্রায় বিশ বছর পর পার্থ দা চুল ছেঁটেছেন, এই সেক্রিফাইসগুলোর জন্য প্রত্যেকের প্রতি কৃতজ্ঞতা।

একই সঙ্গে ‘লেডিস এন্ড জেন্টলম্যান’ এর মূল চরিত্র সাবিলা কে হবেন, শুরুতে এটা নিয়েও চিন্তিত ছিলেন ফারুকী। তিনি জানান, ‘সাবিলা চরিত্রে কে অভিনয় করবে, এটা নিয়ে আমি সবচেয়ে বেশি কষ্টের মধ্যে ছিলাম। খুঁজে পাচ্ছিলাম না, কে হবে সাবিলা! অনেকের সঙ্গে কথা বলেছিলাম। শেষ পর্যন্ত তিশা আমাকে বললো, চরিত্রটি নিয়ে তুমি ফারিণের সাথে কথা বলো। কিন্তু শুরুতে আমি আগ্রহী ছিলাম না। তবু তিশার কথায় সে আমার সাথে সাক্ষাৎ করলো, প্রথম দিনের ব্রিফিংয়ে সে শুধু চোখ বড় বড় করে চুপচাপ শুনলো। তার কথায় কিছু বুঝি নাই। কিন্তু সে যখন সব বুঝে স্ক্রিপ্ট পড়ে দ্বিতীয় দিন আমার সাথে সাক্ষাৎ করতে এলো, পুরোপুরি সাবিলা হয়ে এলো। দেখলাম, ইন্টার্নালিও সে পুরোপুরি চেঞ্জড!

সোমবার (১৪ জুন) বিকেলে প্রকাশিত ২ মিনিট ২১ সেকেন্ডের ট্রেলারে নারীর প্রতি সহিংসতা এবং পরবর্তীতে সেটা প্রকাশিত হলে পরিবার ও সমাজ যেভাবে বিষয়টি দেখে এবং ভিক্টিম ব্লেমিং-বিষয়গুলোও ট্রেলারে স্পষ্ট হয়েছে। যেখানে ওয়েব সিরিজের কেন্দ্রীয় চরিত্র হিসেবে দেখা গেছে নাটকের তাসনিয়া ফারিণকে। যিনি কর্মক্ষেত্রে সহিংসতার শিকার হন!

ট্রেলারজুড়ে দেখা গেলো বেশকিছু তারকা মুখদের। কে নেই সেখানে?মামুনুর রশীদ থেকে শুরু করে, আফজাল হোসেন, জয়ন্ত চ্যাটার্জী, হাসান মাসুদ, সাবেরী আলম, পার্থ বড়ুয়া, মুকিত জাকারিয়া, ইরেশ যাকের, মারিয়া নূর, মোস্তফা মনোয়ার, শরাফ আহমেদ জীবন এবং চঞ্চল চৌধুরী প্রমুখ!

নির্মাতা জানিয়েছেন, আগামি ৯ জুলাই স্ট্রিমিং হবে ‘লেডিস এন্ড জেন্টলম্যান’। যা বিনামূল্যে বাংলাদেশের দর্শকরা দেখতে পারবেন। এছাড়া সাবস্ক্রিপশন করে দেখতে পারবেন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বেশকিছু দেশের দর্শকরা।

‘লেডিস এন্ড জেন্টলম্যান’ প্রযোজনা করেছেন অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা। এটি তার প্রথম প্রযোজিত কোনো ওয়েব সিরিজ, এরআগে তিনি প্রযোজনা করেছেন ফারুকীর প্রথম আন্তর্জাতিক সিনেমা ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’।

সিরিজটির সহ-প্রযোজক হিসেবে আছেন ইরেশ যাকের ও সরদার সানিয়াত হোসেন। জি-ফাইভের জন্য ছবিয়াল ও গুড কোম্পানির যৌথ পরিবেশনা ‘লেডিস এন্ড জেন্টলম্যান’।

বিজ্ঞাপন