চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যে কারণে ‘দ্য কুইন্স গ্যামবিট’ নেটফ্লিক্সে সবচেয়ে বেশি মানুষ দেখল

নেটফ্লিক্সের ‘দ্য কুইন্স গ্যামবিট’ সিরিজটি মুক্তির পর মাত্র ২৮ দিনে বিশ্বব্যাপী দেখা হয়েছে ছয় কোটি ২০ লাখ বার…

নেটফ্লিক্সের ‘দ্য কুইন্স গ্যামবিট’ মিনি সিরিজটি মুক্তির পর মাত্র ২৮ দিনে বিশ্বব্যাপী দেখা হয়েছে ছয় কোটি ২০ লাখ বার। এটি নেটফ্লিক্সের মিনি সিরিজগুলোর মধ্যে নতুন রেকর্ড।

ভ্যারাইটির সূত্রে জানা গেছে, ৭ পর্বের এই সিরিজটি ৬৩টি দেশে রয়েছে এক নম্বরে। আর ৯৩টি দেশে সেরা দশের মধ্যে আছে।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের লেখক ওয়াল্টার টেভিসের ১৯৮৩ সালের বই ‘দ্য কুইন্স গ্যামবিট’ অবলম্বনে তৈরি হয়েছে সিরিজটি। ১৯৫০ থেকে ১৯৬০ এর দশক সময়ের গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে এই সিরিজ।

বেথ হারমোন নামের এক অনাথ মেয়েকে নিয়ে সিরিজটির গল্প। মাকে হারিয়ে বেড়ে উঠে অনাথ আশ্রমে। সেখানকার প্রহরীর কাছে দাবা খেলা শেখে। ধীরে ধীরে দাবা খেলায় পারদর্শী হয়ে এক সময় সে পরিণত হয় দাবা খেলার বিস্ময়কর প্রতিভায়।

স্কট ফ্র্যাঙ্ক নির্মিত এ সিরিজটির পর্বগুলো এগিয়েছে দাবা খেলার বিভিন্ন ধাপের নামে- ওপেনিংস, এক্সচেঞ্জেস, ডাবল্ড পনস, মিডল গেম, ফর্ক, অ্যাডজর্নমেন্ট ও এন্ড গেম।

এ সিরিজে বেথ হারমোন চরিত্রে অভিনয় করেছেন আন্যা টেইলর জয়। তার অভিনয় মন কেড়েছে দর্শকের। অন্য কলাকুশলীদের প্রত্যেকেই নিজ নিজ চরিত্রে অসাধারণ অভিনয় করেছেন। ফলে দর্শক খুব সহজেই সিরিজে ডুবে যেতে পেরেছেন।

‘আউট অব সাইট’ এবং ‘লোগান’ ছবির জন্য চিত্রনাট্যকার হিসেবে দুটি অস্কার জিতেছেন স্কট ফ্র্যাঙ্ক। তিনি খুব ভালো করেই দর্শক টানতে জানেন। নির্মাণেও তিনি দক্ষতা দেখিয়েছেন এই সিরিজে। ১৯৫০ থেকে ১৯৬০ এর দশকের গল্প খুব নিখুঁতভাবে পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন তিনি।

সিরিজের পোশাক এবং সেট ডিজাইনও দেখার মতো। প্রতিটি দৃশ্য দেখলেই বোঝা যায় যে পোশাক এবং সেট ডিজাইনের ক্ষেত্রে যথেষ্ট মনোযোগ দেয়া হয়েছে।

পুরুষতান্ত্রিক সমাজে একজন নারী দাবাড়ুর উত্থান, দাবা খেলার উত্তেজনা, পরের চালে কী হবে তা নিয়ে কৌতূহল, সব মিলিয়ে সিরিজটি নেটফ্লিক্সের দর্শকদের মনে জায়গা করে নিয়েছে।