চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন বাইডেন

Nagod
Bkash July

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন জো বাইডেন। একই সাথে শপথ নিয়েছেন দেশটির প্রথম নারী ভাইস-প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস।

Reneta June

কঠোর নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে স্থানীয় সময় বুধবার দুপুর ১২টার দিকে দেশটির ক্যাপিটল হাউজের সামনে ঐতিহাসিক গেটাসবার্গে শপথ গ্রহণ করেন তারা।

জো বাইডেনকে শপথ পড়ান প্রধান বিচারপতি জন জি রবার্টস ও কমলা হ্যারিসকে শপথ পড়ান সুপ্রীম কোর্টের বিচারপতি সোনিয়া সোটোমেয়র।

এরপরে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

করোনা মহামারিসহ পূর্বসূরির রেখে যাওয়া নানান সমস্যায় ধুকতে থাকা যুক্তরাষ্ট্রকে নতুন করে গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতিকে সামনে রেখে দেশটির ৫৯তম প্রেসিডেন্সিয়াল শপথ অনুষ্ঠানে শপথ নিলেন তারা।

গত নভেম্বরে নির্বাচনের পর থেকে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শিবির নানা ঘাত-প্রতিঘাত মোকাবেলা করে অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাশালী দেশের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করলেন জো বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনের শপথের পরই প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী করোনাভাইরাসকে অগ্রাধিকার দিয়ে নতুন প্রেসিডেন্ট কাজ শুরু করবেন বলে জানান বাইডেনের মুখপাত্র। বেশ কয়েকটি নির্বাহী আদেশেও সই করবেন তিনি।

এসব পদক্ষেপের মধ্যে রয়েছে সব আমেরিকানের জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যাহার আদেশ ফিরিয়ে নেয়া, জাতিগত অসমতা দূর করা এবং অভিবাসী সমস্যার নিরসন। জলবায়ু ইস্যুতে একমাসের মধ্যে প্যরিস চুক্তিতে আবারো যোগ দেওয়ার পদক্ষেপ নেবেন বাইডেন।

তবে দেশটির প্রায় শতবছরের ইতিহাসে ঐতিহ্য ভেঙ্গে নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেনকে হোয়াইট হাউসের অর্ভ্যত্থনা অনুষ্ঠানে থাকলেন না বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

অন্যদিকে ট্রাম্পের বিদায়কালীন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তার ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স না থাকলেও নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মাইক পেন্স।

শপথের আগে হোয়াইট হাউসের চার্চে আসেন নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও নতুন মার্কিন ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন। এসময় মার্কিন স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি উপস্থিত ছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে জন এফ কেনেডির পর বাইডেন দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে রোমান ক্যাথলিকের অনুসারি হিসেবে ডেমোক্র্যাট থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হলেন। এই ক্যাথেড্রাল চার্চেই ১৯৬৩ সালে কেনেডির শেষকৃর্ত্য অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছিল।

এই শপথের মধ্যদিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে একটি নতুন অধ্যায়। সবচেয়ে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট হলেন জো বাইডেন। গত নভেম্বরে তার বয়স ৭৮ বছর পূর্ণ হয়েছে। এর আগে দেশটির বয়স্ক প্রেসিডেন্টের রেকর্ড ছিল বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের।

ওবামা প্রশাসনের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবার তার ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে পেয়েছেন একজন নারীকে। সেটিও একটি ইতিহাস। কারণ কমলা হ্যারিস দেশটির প্রথম নারী ভাইস-প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। আজ তারা দুজনে যুক্তরাষ্ট্রের ৫৯তম প্রেসিডেন্সিয়াল শপথ অনুষ্ঠানে শপথ নিলেন।

জো বাইডেনের জীবন বৈচিত্র্যময়। বহু উত্থান-পতনের সাক্ষী তিনি। বাইডেন বহুবার হেরেছেন। কিন্তু মানসিকভাবে হারেননি। হারিয়েছেন পরম প্রিয় আপনজনদের। কিন্তু নিজেকে হারাতে দেননি। তাই তো ৭৮ বছরে যেখানে মানুষ মৃত্যুর ক্ষণ গণনা করেন সেখানে তিনি গ্রহণ করছেন বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিধর রাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব।

বাইডেনের জন্ম ১৯৪২ সালে পেনসিলভেনিয়ার স্ক্রাটনে। চার ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড় বাইডেন পরে স্ক্রাটন ছেড়ে পরিবারের সঙ্গে ডেলাওয়ারে চলে আসেন। বাবা জোসেফ রবিনেট বাইডেন সিনিয়র আর আইরিশ বংশোদ্ভূত মা ক্যাথরিন ইউজেনিয়া ফিনেগান।

BSH
Bellow Post-Green View