চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মানবিক মানুষরাই পৃথিবীকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে

সবার জন্য বৈষম্যমুক্ত সমাজ গড়ার প্রত্যয় ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সমসুযোগ, সমঅংশগ্রহণ, সমঅধিকার এবং মর্যাদাপূর্ন জীবনযাপন নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়ে ৯ ই মার্চ, শুক্রবার পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্র (সিআরপি) সাভার-এ পালিত হচ্ছে বার্ষিক উন্মুক্ত দিবস।

বিজ্ঞাপন

পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্র (সিআরপি) ১৯৭৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকেই কাজ করে আসছে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের চিকিৎসা, প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসনের মাধ্যমে সমাজের মূলস্রোতধারায় একীভূত করার জন্য। বছরের একটি নির্দিষ্ট দিন সিআরপি তার সেবাগ্রহীতা, দাতা, বন্ধু, স্বেচ্ছাসেবক, কর্মী ও শুভানুধ্যায়ী সহ সাধারন মানুষের মাঝে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার সম্পর্কে জনসচেতনতা ও সমাজের সম্মানিত ব্যক্তিবর্গের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি এবং নতুনদের তার সেবা ও কার্যক্রম আরও বেশি অবহিত করার জন্য আয়োজন করে থাকে বার্ষিক উন্মুক্ত দিবস।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উন্নয়ন সাংবাদিক ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ।

সকাল ১০টায় সিআরপির প্রতিষ্ঠাতা ও সমন্বয়কারী ড. ভ্যালেরি টেইলর প্রধান অতিথিকে বরণ করে নেয়ার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। পরবর্তীতে সিআরপির রেডওয়ে হলে অতিথিদের সম্মানে বিশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সিআরপির উইলিয়াম ও মেরী টেইলর একীভূত স্কুলের বিশেষ শিশুদের নৃত্য এবং প্রতিবন্ধী কর্মকর্তাদের হুইলচেয়ার নাচ পরিবেশিত হয়। এরপর সিআরপির নিজস্ব প্রকাশনা “সিআরপির ইতিহাস” নামক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন।

বেলা ১১টায় সিআরপি আয়োজিত মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের মাধ্যমে শাইখ সিরাজ উন্মুক্ত দিবস ২০১৮-এর শুভ সূচনা করেন। এরপর তিনি সিআরপির কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেন এবং এলাকা পরিদর্শন করেন। সিআরপির প্রতিষ্ঠাতা ও সমন্বয়কারী ভ্যালেরি টেইলর বলেন, ‘আমার বন্ধু শাইখ সিরাজকে প্রধান অতিথি হিসেবে পেয়ে আমরা আনন্দিত।’

উন্মুক্ত দিবস উপলক্ষে তিনি বলেন, ‘সিআরপির সেবাসমূহ সম্পর্কে জানতে আগ্রহী সমাজের সর্বস্তরের মানুষের জন্য এই বিশেষ দিনে সিআরপি সারা দিনব্যাপী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকে। সমাজের সংশ্লিষ্টতা ছাড়া কোন প্রতিষ্ঠান কাজ করতে পারে না। তাই যেকোনো অসুস্থ ব্যক্তি তার প্রয়োজন অনুযায়ী সিআরপি থেকে যথাযথ সেবা গ্রহণ করতে পারবেন কিনা সে সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারনা পান।”

শাইখ সিরাজ চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, মানবিক মানুষরাই পৃথিবীকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। ভ্যালেরি টেইলরের মানবিক এ কার্যক্রম সমাজের সর্বস্তরের মানুষের জন্য অনুসরণীয়। মানুষ মানুষের পাশে দাঁড়ালেই পৃথিবী সুন্দর হয়ে ওঠে।

অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত ছিলেন সিআরপির নির্বাহী পরিচালক মো: শফিকুল ইসলাম সহ সিআরপি’র রোগী, ছাত্র-শিক্ষক, ভলান্টিয়ার, কর্মকর্তা-কর্মচারী, সরকারী-বেসরকারী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্মকর্তা-কর্মচারী সহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ব্যক্তিবর্গ।

বিজ্ঞাপন