চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মাত্র ২৩ টাকায় টিসিবির পেঁয়াজ

টিসিবির মাধ্যমে অনলাইন শপে মধ্যবিত্ত ক্রেতাদের জন্য ন্যায্যমূল্যে গত ২০ সেপ্টেম্বর থেকে পেঁয়াজ বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

এতে সহযোগিতা করেছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। অনলাইনে পেঁয়াজ বিক্রির শুরুতে বাজারে পেঁয়াজের দাম কমে যায় কেজি প্রতি ২০ টাকা। গতকাল থেকে টিসিবি’র অনলাইন বিক্রির ক্ষেত্রে আরো একদফা দাম কমানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

অনলাইন শপগুলো এখন ৩৬ টাকা কেজির পরিবর্তে ২৩ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে এবং ৩ কেজির পরিবর্তে জনপ্রতি যতকেজি প্রয়োজন কেনা যাবে।

রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য দেয় ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)।

গত কয়েক সপ্তাহে দফায় দফায় পেঁয়াজের দাম কমেছে। শুরু শুধুমাত্র ঢাকায় ৮টি প্রতিষ্ঠান অনলাইনে পেয়াজ বিক্রি করলেও বর্তমানে যুক্ত হয়েছে আরো ১০টি প্রতিষ্ঠান।

এর মধ্যে চট্টগ্রাম, টাঙ্গাইল, রাজশাহী ও সিরাজগঞ্জের অনলাইন প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ভবিষ্যতে পেঁয়াজের পাশাপাশি অনলাইনে টিসিবি’র অন্যান্য পণ্য বিক্রির সম্ভাবনা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ই-ক্যাব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও টিসিবি একটি যৌথ নীতিমালার অধীনে নির্বাচিত অনলাইন গ্রোসারিশপগুলো বিধিমেনে সরকার নির্ধারিত দামে পেয়াজ বিক্রি করছে।

গত ১৬ সেপ্টেম্বর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে এক প্রেস কনফারেন্সে বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, ‘দেশে ৬ লাখ টন পেয়াজ মজুদ আছে, আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। এছাড়া মিয়ানমার এবং তুরস্ক থেকে পেঁয়াজ আমদানি করা হবে। টিসিবির পাশাপাশি ই-কমার্সের মাধ্যমেও কম দামে আমদানি করা এই পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে’|

ই-ক্যাবের জেনারেল সেক্রেটারী মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল বলেন, অনলাইনে যেহেতু পণ্যের দাম উল্লেখ থাকে তাছাড়া আমাদের বেশ কয়েকটি সদস্য প্রতিষ্ঠান সরকার নির্ধারিত দামে পণ্য বিক্রি করেছে এবং অনেকে ন্যূনতম ডেলিভারী চার্জ কিংবা কোনো ডেলিভারী চার্জ ছাড়াই পেঁয়াজ বাসায় পৌঁছে দিয়েছে।

প্রথম দিকে সরবরাহ কম থাকলেও এখন অনলাইনে পর্যাপ্ত পেয়াজ রয়েছে। ফলে বাজারে আশাতীত ভাবে পেয়াজের দাম কমেছে। ই-কমার্স সেক্টরের জন্য এটা একটা উল্লেখযোগ্য অবদান দেশের অর্থনীতিতে।

ই-ক্যাবের জেনারেল ম্যানেজার জাহাঙ্গীর আলম শোভেন বলেন, বর্তমানে ১০ হাজার মেট্রিকটন পেয়াজ অনলাইন শপ থেকে বিক্রি হচ্ছে। বর্তমানে আমদানীকৃত পেয়াজ পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে ই-কমার্সশপগুলো বাছাই করা সেরা পেঁয়াজ ক্রেতাদের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছে। ঘরে বসে পেঁয়াজ সাথে অন্যান্য মুদিপণ্য খুব সহজেই কিনতে পারছেন ক্রেতারা।

বর্তমানে যেসব প্রতিষ্ঠান থেকে পেয়াজ মিলবে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে চালডাল, স্বপ্ন, মীনাক্লিক, যাচাই, সিন্দবাদ, সবজিবাজার, কিউকম, মীম গ্রোসারি (চট্টগ্রাম), ই-ট্রাইক্যাচ (টাঙ্গাইল), গ্রামীণফ্রেন্ডস (সিরাজগঞ্জ), কেজিক্লিক ও ফরমোছা ইত্যাদি। ঢাকা, নারায়নগঞ্জ ও গাজীপুরে ডেলিভারী চার্জ ব্যতিত বাসায় পেয়াজ পৌঁছে দিচ্ছে যাচাই ডট কম। এছাড়া ডেলিভারী চার্জ নিয়ে পেঁয়াজ বিক্রি করছে চালডালসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান।

বিজ্ঞাপন