চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভ্যাকসিন নিবন্ধন বন্ধ

দেশে এবার কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের নিবন্ধন বন্ধ করে দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এর আগে করোনাভাইরাসের টিকার ঘাটতি থাকায় প্রথম ডোজ দেওয়া বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আজ বুধবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা চ্যানেল আই অনলাইনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আপনারা জানেন, ‘ভ্যাকসিন সংকটের কারণে ইতোমধ্যে আমরা প্রথম ডোজ বন্ধ করে দিয়েছি। তারপরও আমাদের প্রায় ১৪ লাখের মতো ভ্যাকসিনের ঘাটতি রয়েছে। এ অবস্থায় আপাতত ভ্যাকসিনের নিবন্ধন আমরা স্থগিত করেছি।’

সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ‘নতুন করে প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন দেওয়া যখন শুরু হবে, সেসময় আবার নিবন্ধন চালু করা হবে। এর মধ্যে আমরা বাকি ভ্যাকসিনগুলো দিতে থাকব।’

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, ‘ভ্যাকসিনের চালান চুক্তিমত আমাদের হাতে এসে পৌঁছায়নি। যে কারণে আপাতত যাদের নিবন্ধন করা আছে, তাদেরই টিকা দেওয়া শেষ করতে চাই আমরা।’

এর আগে গত ২৬ এপ্রিল থেকে করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তখন নিবন্ধন বন্ধের বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। এরপর থেকে কিছু ক্ষেত্রে নিবন্ধন করা গিয়েছিল। এবার টিকা সংকটের কারণে নিবন্ধন বন্ধের ঘোষণা এলো।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি দেশে করোনাভাইরাসের গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছিল। তখন থেকে গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৫৮ লাখ ১৯ হাজার ৭৫৭ জন।

আর দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৩১ লাখ ৬ হাজার ৭০৯ জন। অর্থাৎ, দুই ডোজ মিলিয়ে মোট ৮৯ লাখ ২৬ হাজার ৪৬৬ ডোজ ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে।

ভ্যাকসিনের বর্তমান মজুদের সঙ্গে হিসাব মিলিয়ে দেখা গেছে, ১৪ লাখ ৩৯ হাজার ৫১৪ ডোজের সংকট রয়েছে।

বিজ্ঞাপন