চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্যর্থতার কারণ অনুসন্ধানে নেমেছে বিসিবি

টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে দলের পারফরম্যান্স কেন এত খারাপ হলো সেটির কারণ অনুসন্ধান করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সিনিয়র-জুনিয়র ক্রিকেটারদের সঙ্গে বোর্ডের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হচ্ছে। সমস্যা থাকলে তা দ্রুত সুরাহা করে দেশের ক্রিকেটকে সঠিক পথে নিয়ে যাওয়াই এখন বিসিবির লক্ষ্য।

প্রয়োজনে টিম ম্যানেজমেন্টে পরিবর্তন আনতে পিছপা হবে না বিসিবি, এমন মত দিয়েছেন একজন পরিচালক। নিজেদের মধ্যে আলোচনা হচ্ছে, পাশাপাশি বোর্ডের বাইরের কয়েকজনের সঙ্গেও সঙ্কটের সময়ে কথা বলা হচ্ছে বিসিবির পক্ষ থেকে। সাবেক ক্রিকেটারদের কাছ থেকেও নেওয়া হচ্ছে পরামর্শ।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন চিকিৎসার জন্য আজ লন্ডনে গেছেন। তিনি ফেরার পর মিরপুরে পাকিস্তান সিরিজের সময় সভা হবে বিসিবির। তার আগেই অবশ্য বোর্ডের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকজনের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক বৈঠক করেছেন বোর্ড সভাপতি।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার রাতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের শেষ ম্যাচের পর কয়েকজন বোর্ড পরিচালককে বাসায় ডেকেছিলেন নাজমুল হাসান। সব পক্ষের মতামত নিয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্তের বার্তা দিয়েছেন তিনি। বেশ কিছু পরিবর্তন অবশ্যম্ভাবী। সেটি খেলোয়াড় থেকে শুরু করে টিম ম্যানেজমেন্ট, কোচ, এমনকি নির্বাচক পর্যন্ত হতে পারে।

নাম অপ্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বিসিবি পরিচালক চ্যানেল আই অনলাইনকে দেন তার মতামত, ‘সবাইকে শান্ত থেকে কী করলে ভালো হয় সেটি নিয়ে ভাবতে হবে। এই অবস্থায় সবার সাথে কথা বলে দলকে সঠিক ট্র্যাকে আনার জন্য যা করার তা করতে হবে বোর্ডকে। আর কোনো খেলোয়াড় তো ইচ্ছে করে খারাপ খেলে না, কেন খেলল সেটা তো বের করে আনবে হবে। দলের স্বার্থের জন্য যা প্রয়োজন তা করতে হবে। সবার কাছ থেকেই পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে বোর্ড, বোর্ডের বাইরে, ক্রিকেটার; সিনিয়র-জুনিয়র সবার, সাবেক ক্রিকেটারদের সাথেও কথা বলা হচ্ছে।’

‘এখন একটাই লক্ষ্য ক্রিকেটের প্রাণ ফিরিয়ে নিয়ে আসা, খেলোয়াড়দের চাঙা করা। আমরা যে লেভেলে এসেছি তাতে কি ক্রিকেটারদের কৃতিত্ব নাই? বোর্ডের কৃতিত্ব নাই? অবশ্যই আছে। কেন তারা খারাপ করল সেটা তো আমাদেরও প্রশ্ন। এমন অবস্থায় সব দিকেই (পরিবর্তন প্রসঙ্গে) চিন্তা করা হচ্ছে। ক্রিকেটের ভালোর জন্য যা করার তাই করতে হবে। টিম ম্যানেজমেন্টে পরিবর্তন দরকার হলে করতে হবে।’

বিজ্ঞাপন