চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বোলিং দাপটে সমতায় পাকিস্তান

কাজটা আগেই সহজ করে দিয়েছিলেন বোলাররা। সেই সহজ কাজটা ধীরেসুস্থে সফলভাবেই সেরেছেন ব্যাটসম্যানরা। বোলারদের দাপটের দিনে সাউথ আফ্রিকা বড় ব্যবধানে হারিয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে পাকিস্তান। চতুর্থ ম্যাচে প্রোটিয়াদের ৮ উইকেটে হারায় সফরকারীরা।

পাকিস্তানের বোলাদের মারাত্মক আক্রমণে ধসে পড়ে সাউথ আফ্রিকার ব্যাটিং লাইনআপ। শুরুতে থেকে শেষ পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রানেই আটকে যায় তারা। পরে টপ অর্ডারদের সাবধানী ব্যাটিংয়ে পাকিস্তান ম্যাচ জিতে নেয় ৮ উইকেটে। পাঁচ ম্যাচের সিরিজ এখন ২-২ সমতায় ফিরল।

বিজ্ঞাপন

এই ম্যাচে নিয়মিত অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে ছাড়াই খেলতে নামে পাকিস্তান। বর্ণবাদী মন্তব্যের জেরে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছেন সরফরাজ। এদিন দলের নেতৃত্ব দিয়েছেন শোয়েব মালিক। সরফরাজ ফেরা না পর্যন্ত অভিজ্ঞ এবং সাবেক এই অধিনায়কই দায়িত্বে থাকবেন। সরফরাজের জায়গায় উইকেটের পেছনের দায়িত্ব সামলাবেন মোহাম্মদ রিজওয়ান।

টসে জিতে প্রথম ফিল্ডিং করতে নামে পাকিস্তান। ইমাদ ওয়াসিমের বলে বোল্ড হওয়ার আগে দলীয় সর্বোচ্চ ৫৯ রান করেন হাশিম আমলা। সাদাব খানের শিকার হওয়ার আগে অধিনায়ক ফ্যাফ ডু প্লেসিস করেন ৫৭ রান।

বিজ্ঞাপন

প্রোটিয়া ইনিংসে সবচেয়ে বড় ধস নামিয়েছেন উসমান খান শেনওয়ারি। নিজের করা ষষ্ঠ ও সপ্তম ওভারে চারজন স্বাগতিক ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরান তিনি। এর মধ্যে হ্যাটট্রিক করার সুযোগও পেয়েছিলেন ২৫ বছরের শেনওয়ারি।

ইনিংসের একেবারে গোড়াতে দুই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে শুরুটা অবশ্য করেছিলেন ১৮ বছরের তরুণ বাঁহাতি পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি।

ক্যান্সার বিষয়ে সচেতনার জন্যে এই ম্যাচে গোলাপি জার্সি পড়ে মাঠে নামে সাউথ আফ্রিকা। ৩৫ রানে ৪ উইকেট নেয়া পাকিস্তানি পেসার শেনওয়ারি নিজের পারফরম্যান্স উৎসর্গ করেছেন ক্যান্সার রোগীদের।

১৬৪ রানের ছোট টার্গেট সামনে রেখে দারুণ শুরু এনে দেন দুই ওপেনার ফখর জামান ও ইমামুল হক। ৪৪ বলে ৪৪ রান করে ইমরান তাহিরের বলে ফখর আউট হলে ভাঙে ৭০ রানের জুটি। ফখর না পারলেও হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন ইমাম। ৭১ রান করে তিনি আউট হন ফেলুকোওয়ের বলে। ৪১ রান করে অপরাজিত থাকেন বাবর আজম।

দুদলের সিরিজ নির্ধারণী শেষ তথা পঞ্চম ওয়ানডে হবে ৩০ জানুয়ারি, কেপ টাউনে।

Bellow Post-Green View