চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘বোট ক্লাবের সিসিটিভি ফুটেজ জব্দ, অমির অফিসে শতাধিক পাসপোর্ট’

অভিনেত্রী পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা

অভিনেত্রী পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার ঘটনা বিশ্লেষণে ঢাকা বোট ক্লাবের সিসিটিভি ফুটেজ উদ্ধার করেছে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

পাশাপাশি গ্রেপ্তার তুহিন সিদ্দিকী অমির আশুলিয়ার অফিসে তল্লাশি চালিয়ে নগদ অর্থ ও শতাধিক পাসপোর্ট উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ঢাকা বোট ক্লাবের সিসিটিভিতে দেখা যায়, ৯ জুন, রাত ১২টা ২২ মিনিট। ঢাকা বোট ক্লাবের সামনে একটি কালো গাড়ি থামে। গাড়িটি ছিল অমির। গাড়ির সামনের দরজা থেকে নামেন পরীমণি। পেছনের ডান পাশের দরজা দিয়ে বের হন গ্রেপ্তার হওয়া বোট ক্লাবের সদস্য অমি, পরীমণির কস্টিউম ডিজাইনার জিমি, তার বোন বনি।

রিসিপশনের ক্যামেরায় তাদের চারজনকে একসঙ্গে বারে ঢুকতে দেখা যায়। তখন রিসিপশন ডেস্কে ছিলেন দুইজন এবং ডেস্কের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন আরও একজন স্টাফ।

রাত ২টায় রিসিপশনের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, পরীমণিকে অচেতন অবস্থায় কোলে করে নিয়ে বের হন জিমি ও একজন সিকিউরিটি গার্ড। পেছনে দৌড়াচ্ছিলেন তার বোন বনি। তাদের পেছনে স্বাভাবিকভাবে হেঁটে যাচ্ছিলেন অমি। গাড়িতে ওঠার সময় আঙুল তুলে সবাইকে ধমকের ইঙ্গিত দিতে দেখা গেছে অমিকে।

এদিকে বনানী থানার বাইরের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, রাত ৩টা ৫২ মিনিটে বনানী থানায় প্রবেশ করেন পরীমণি। প্রথমে তারা ডিউটি অফিসারের রুম হয়ে থানার ভেতরে প্রবেশ করেন। পরে একজন অফিসার তাদের ডিউটি অফিসারের কাছে যেতে বলেন। পরীমণি ডিউটি অফিসারের রুমে গিয়ে তার বরাবর চেয়ারে বসেন এবং ঘটনার বর্ণনা দেন। তবে ডিউটি অফিসার তার কথা বুঝতে পারছিলেন না। পরে তাকে পুলিশের একটি গাড়িতে এভার কেয়ার হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বারের ভেতরে সিসিটিভি ফুটেজ না থাকলেও জিমি তার মোবাইলে ১৬ সেকেন্ডের মতো একটি ধস্তাধস্তির ভিডিও করেছিলেন। এতে নাসিরকে হই-হুল্লোড় ও গালমন্দ করতে শোনা যায়।

বিজ্ঞাপন

ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে মঙ্গলবার বিকেলে গ্রেফতার অমির এক ব্যবসায়িক পার্টনার ও তার অফিসের একজন উর্ধতন কর্মকর্তাকে নিয়ে অমির আশকোনা অফিসে তল্লাসী করে সাভার থানা পুলিশ। উদ্ধার করে নগদ টাকা ও ১০২টি পাসপোর্ট।

ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন,  দক্ষিণখান থানায় মামলার তদন্ত ভার নিতে পারে ডিবি। বর্তমানে উত্তরার মাদকের মামরায় মিন্টুরোড ডিবি কার্যালয়ে সাত  দিনের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে নাসির, অমি ও তিন নারীর।

নাসির ও অমির কাছে পাওয়া মাদকের উৎস খোঁজা হচ্ছে। ওই পরিমাণ মাদক কি পরিস্থিতিতে কার জন্যে মজুদ করা হয়েছিলো, জানতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, পরীমনির অভিযোগ তুহিন সিদ্দিকী অমির পরিচয়ের সুত্র ধরে বোট ক্লাবে গেলে সেখানে তাকে নির্যাতন ও ধর্ষণ চেষ্টা করা হয়। বোট ক্লাবের সিসি ক্যামেরা পর্যালোচনা করে পরীমনির বক্তব্যের সঙ্গে নাসির ও অমির বক্তব্য মিলিয়ে দেখা হচ্ছে। ওই সময়ে কী কী ঘটেছিলো, তার মোটামুটি একটা ধারণা মিলছে সিসি ফুটেজ থেকে।

পরীমনির মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ডিবির মামলার রিমান্ড শেষে হলে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের চেষ্টা করবে সাভার থানা পুলিশ।

এর আগে পরীমণির দায়ের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে উত্তরার তুহিন সিদ্দিকী অমির বাসায় অভিযান চালায় ডিবি। সেখান থেকে অভিযুক্ত নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও অমিসহ তিন নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযানে অমির বাসায় তল্লাশি চালিয়ে এক হাজার পিস ইয়াবা, বিদেশি মদ ও বিয়ার জব্দ করা হয়।

গত রোববার রাতে ফেসবুক পোস্টে পরীমণি অভিযোগ করেন, ৯ জুন উত্তরার বোট ক্লাবে তাকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা চালান ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদ ও তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় তিনি সাভার থানায় ছয়জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

বিজ্ঞাপন