চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বেড়েছে ওটিটির কদর: বছরের আলোচিত ১০ ওয়েব সিরিজ

বছর শেষে...

২০২০ সালকে ওয়েব সিরিজের বছর বললে ভুল হবে না…

২০২০ সালকে ওয়েব সিরিজের বছর বললে ভুল হবে না। করোনার কারণে সিনেমা হল বন্ধ থাকায় নতুন সিনেমা মুক্তি পায়নি। দর্শক ওটিটি প্লাটফর্মের দিকে ঝুঁকেছে। ওয়েব সিরিজের নেশায় মজেছে। উপভোগ করেছে নানা দেশের, নানা ভাষার ওয়েব সিরিজ। ২০২০ সালের আলোচিত দশ ওয়েব সিরিজ নিয়ে সাজানো হয়েছে এই ফিচার:

দ্য ক্রাউন সিজন ফোর: ওয়েব স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সের জনপ্রিয় একটি ওয়েব সিরিজ ‘দ্য ক্রাউন’। দ্বিতীয় রানী এলিজাবেথের শাসনকালীন ঐতিহাসিক ও গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে নির্মিত এ সিরিজটি রচনা করেছেন পিটার মরগান আর প্রযোজনায় আছে লেফট ব্যাংক পিকচার্স এবং সনি পিকচার্স টেলিভিশন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

র‍্যামি সিজন টু: মর্ডান আমেরিকান মুসলমানদের প্রকৃত চিত্র তুলে ধরা হয়েছে আমাজন প্রাইম ভিডিওর এই সিরিজে। মুল একটি চরিত্রে আছেন অস্কারজয়ী মাহেরশালা আলি।

মিসেস আমেরিকা: ডিজনি প্লাস হটস্টারের এই সিরিজ শুরু হয়েছে এপ্রিল থেকে। এই সিরিজে অভিনয় করেছেন কেট ব্ল্যানচেট, রোজ বায়ার্ন, উজো আদুবা, ট্রেসি উলম্যান এবং সারাহ পলসন।

লিটল ফায়ার্স এভরিহোয়্যার: ডিজনি প্লাস হটস্টারের এই সিরিজে অভিনয় করেছেন রিজ উইদারস্পুন এবং কেরি ওয়াশিংটন। এক মায়ের গল্প। মায়েরাও যে মানুষ এবং ভুল করতে পারেন, সেটাই দেখানো হয়েছে সিরিজে।

বিজ্ঞাপন

ডার্ক সিজন থ্রি: নেটফ্লিক্স প্রযোজিত জার্মান সায়েন্স ফিকশন ও থ্রিলার ধাঁচের ওয়েব সিরিজ ডার্ক খুব জনপ্রিয়। নির্মাণ করেছেন ব্যারেন বো ওডার এবং জান্তজে ফ্রিজ। সিরিজটির গল্প জার্মানির উইন্ডেন নামের একটি শহরকে ঘিরে। এই শহরে ২০১৯ সালের প্রেক্ষাপটে গল্প শুরু হয়। শহরের এক ছোট্ট ছেলে মিকেল। তার হারিয়ে যাওয়া থেকেই মূল ঘটনার শুরু। শহরের কাছেই এক জঙ্গলের মধ্যে একটি গুহা। সেই গুহার আশেপাশেই নিখোঁজ হয়েছিলো মিকেল। একপর্যায়ে নিজের ছেলেকে খুঁজতে বেরিয়ে পরে বাবা উলরিক। ঘটতে থাকে একের পর এক ঘটনা। নেটফ্লিক্সে এই সিরিজের তিনটি সিজনই আছে।

আপলোড: নতুন এক পৃথিবী তৈরি করে তাতে নতুন বিষয় এবং প্রযুক্তি নিয়ে আসা সহজ কাজ নয়। আমাজন প্রাইমের আলোচিত ওয়েব সিরিজ আপলোড নির্মাতা গ্রেগ ড্যানিয়েল এমন অসাধ্যই সাধন করেছেন। অভিনয় করেছেন রবি অ্যামেল এবং অ্যান্ডি অ্যালো। আপলোড সাইন্স ফিকশন কমেডি ঘরানার সিরিজ।

আনরোডাডক্স: নেটফ্লিক্সের জার্মান-আমেরিকান সিরিজ আনরোডাডক্স। দেবোরাহ ফিল্ডম্যানের ২০১২ সালের আত্মজীবনী ‘আনরোডাডক্স: দ্য স্ক্যান্ডালাস রিজেক্ট অফ মাই হাসিডিক রুটস’ থেকে অনুপ্রাণিত। বার্লিনে নতুন জীবন শুরু করার জন্য এক নারীর সম্প্রদায় এবং সংসার ছাড়ার গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে এই সিরিজ।

দ্য কুইন্স গ্যামবিট: নেটফ্লিক্সের ‘দ্য কুইন্স গ্যামবিট’ মিনি সিরিজটি মুক্তির পর মাত্র ২৮ দিনে বিশ্বব্যাপী দেখা হয়েছে ছয় কোটি ২০ লাখ বার। একের পর এক রেকর্ড গড়ছে এই সিরিজটি। যুক্তরাষ্ট্রের লেখক ওয়াল্টার টেভিসের ১৯৮৩ সালের বই ‘দ্য কুইন্স গ্যামবিট’ অবলম্বনে তৈরি হয়েছে সিরিজটি। ১৯৫০ থেকে ১৯৬০ এর দশক সময়ের গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে এই সিরিজ। বেথ হারমোন নামের এক অনাথ মেয়েকে নিয়ে সিরিজটির গল্প। মাকে হারিয়ে বেড়ে উঠে অনাথ আশ্রমে। সেখানকার প্রহরীর কাছে দাবা খেলা শেখে। ধীরে ধীরে দাবা খেলায় পারদর্শী হয়ে এক সময় সে পরিণত হয় দাবা খেলার বিস্ময়কর প্রতিভায়।

দ্য বয়েজ সিজন টু: ২০১৯ সালের সফল প্রথম সিজনের পর অ্যামাজন প্রাইম নিয়ে এসেছে দ্য বয়েজ সিরিজের দ্বিতীয় সিজন। ‘দ্য বয়েজ’ তৈরি করা হয়েছে গার্থ এনিস এবং ড্যারিক রবার্টসনের লেখা একই নামের কমিক থেকে। দ্য বয়েজ সিরিজটি অনেকটা সুপারহিরো টাইপের হলেও পরিচিত সুপারহিরোদের কাহিনী থেকে অনেকটাই ভিন্ন।

দ্য হন্টিং অব ব্লাই ম্যানর: নেটফ্লিক্সের আলোচিত হরর ড্রামা ‘দ্য হন্টিং অব ব্লাই ম্যানর’। হরর ড্রামাপ্রেমীদের কাছে আলোচিত সিরিজটি পরিচালনা করেছেন মাইক ফ্লানাগান। হেনরি জেমসের ১৯৯৮ সালের হরর উপন্যাস ‘দ্য টার্ন অব দ্য স্ক্রু’র গল্পে নির্মিত হয়েছে ‘দ্য হন্টিং অব ব্লাই ম্যানর’।

বিজ্ঞাপন