চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিপিএল জমল, তবে একটু দেরিতে

সিলেট থেকে: মিরপুরে পর্দা ওঠা বিপিএলের ষষ্ঠ আসরের শুরুটা ছিল ম্যাড়মেড়ে। ঘুমপাড়ানি ব্যাটিংয়ে বিরক্তি চূড়া ছোঁয়ার পর দেখা মেলে চার-ছক্কার প্রদর্শনী। টি-টুয়েন্টির সেই উত্তাপ গায়ে মেখে বিপিএল সিলেটে আসতেই পেছনে ফিরে যাওয়া। ছোট পুঁজির তিনটি ম্যাচ গড়ানোর পর অবশেষে বুধবার রাতে দেখা গেল রানের জোয়ার। সেটি হোম টিম সিলেট সিক্সার্সের ব্যাট ধরেই।

আগের রাতে ৬৮ রানে অলআউট হওয়া ডেভিড ওয়ার্নারের দল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে শুরুতে ব্যাট করে তুলেছে ১৮৭ রান।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার যারা নিজ দলের খেলোয়াড়দের দুয়োধ্বনি দিয়েছেন, তারাই এদিন ‘সিক্সার্স…সিক্সার্স’ কোরাস তুলে গ্যালারি মাতিয়ে রাখলেন। আর উপভোগ করলেন লিটন-সাব্বির-ওয়ার্নার-পুরানের ব্যাটে আসা চার-ছক্কার প্রদর্শনী।

বিজ্ঞাপন

শেষটায় রোমাঞ্চ আরও বাড়িয়ে দিলেন ওয়ার্নার ডানহাতে ব্যাট করে। ক্রিস গেইলের করা ইনিংসের ১৯তম ওভারের চতুর্থ বলটি থেকে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান স্ট্যান্স বদলে হয়ে যান ডানহাতি। ব্যাটিং স্টাইল পরিবর্তন করে প্রথম বলেই মারেন সোজা ব্যাটে ছক্কা। পরের বলে স্কয়ারলেগ দিয়ে চার, শেষ বলটায় রিভার্স সুইপ করে মারেন আরও একটি চার। শেষ পর্যন্ত ৬১ রানে অপরাজিত থাকেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার। খেলেন মাত্র ৩৬ বল।

তার আগে লিটন দাস খেলে যান ৪৩ বলে ৭০ রানের ইনিংস। এ দুই ব্যাটসম্যানের জ্বলে ওঠায় গেইলদের চ্যালেঞ্জে ফেলতে পেরেছে স্বাগতিক দল।

সিলেট পর্বে প্রথম তিন ম্যাচে আগে ব্যাট করা দল তুলতে পারে ১২৮, ৬৮ ও ১৩৬ রান। যার মধ্যে শেষটিতে ১৩৬ রান নিয়েও ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে জেতে রাজশাহী কিংস। সেটিও আবার ২০ রানের ব্যবধানে। ওরকম ম্যাচ দেখার পর রাতে দুইশর কাছাকাছি সংগ্রহ অস্বস্তি কাটিয়ে স্বস্তিতে ফেরার মতোই ব্যাপার।

Bellow Post-Green View