চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিদ্যুতে হাত-পা হারানো রাকিবুজ্জামানের ক্ষতিপূরণে রুল

পল্লী বিদ্যুতের তারে বিদ্যুতায়িত হয়ে হাত-পা হারানো শিশু রাকিবুজ্জামানের ক্ষতিপূরণ প্রশ্নে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

এছাড়াও রাকিবুজ্জামানের এখন পর্যন্ত কি চিকিৎসা হয়েছে এবং আরও কি কি চিকিৎসা প্রয়োজন- তা আদালতকে জানাতে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের পরিচালকের প্রতি নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ঘটনার পর রাকিবুজ্জামানদের বাড়ির কেটে দেয়া বিদ্যুত সংযোগ পুনরায় দিতেও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এক হাত-পা হারা রাকিবুজ্জামানের জন্য ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে করা রিটের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ সোমবার আদেশ দেন।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সচিব, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার, জোনাল ম্যানেজার, সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার, প্রকল্প পরিচালক, সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক ও প্রধান বিদ্যুৎ পরিদর্শককে আগামী ৭ দিনের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী ১৮ নভেম্বর দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী তাজুল ইসলাম। তার সাথে ছিলেন
আইনজীবী মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম ও আইনজীবী রোহানি সিদ্দিকা। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

রিটের পক্ষের আইনজীবী আজ আদালতে বলেন, ‘সাতক্ষীরার আশাশুনি থানার প্রতাপনগরের রাকিবুজ্জামানদের বাড়ির ওপর দিয়ে কভারহীন বিদ্যুতের লাইন না নিতে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার বরাবর আবেদন করা হয়। প্রয়োজনে কাভারযুক্ত তার টানার ক্ষেত্রে খরচের টাকা দেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়। কিন্তু এসব না শুনে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ওই বাড়ির ওপর দিয়ে কভারহীন বিদ্যুতের লাইন টানে।’

‘‘একপর্যায়ে গত ৯ মে ৭ বছরের শিশু রাকিবুজ্জামান ওই বিদ্যুতের লাইনে বিদ্যুতায়িত হয়। এতে তার শরীর ঝলসে যায়। দ্রুত তাকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে রেফার্ড করেন। এখানে চিকিৎসাধীর একপর্যায়ে গত ১২ মে রাকিবুজ্জামানের ডান হাতের ও ডান পায়ের একাংশকেটে ফেলা হয়।

এমন বাস্তবতায় সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কাছে রাকিবুজ্জামানের চিকিৎসা ও ক্ষতিপূরণের জন্য আবেদন করা হয়। তবে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়।’’

রিটের পক্ষের আইনজীবী তাজুল ইসলাম আদালতকে বলেন, ‘শিশু রাকিবুজ্জামানের স্বপ্ন ছিলো ডাক্তার হবার। কিন্তু বিদ্যুতায়িত হয়ে তার হাত-পা কাটা পড়া এখন সে দুর্বিষহ এক জীবনের মুখোমুখি। ‘

বিজ্ঞাপন