চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিদেশীর ক্যামেরায় ঝুঁকিপূর্ণ গার্মেন্টসে শিশুশ্রমের চিত্র

রানা প্লাজা ট্রাজেডির পর পোশাক শ্রমিকদের সুরক্ষায় নড়েচড়ে বসে মালিকপক্ষ ও সরকার। আন্তর্জাতিক ক্রেতাদের চাপে কারখানার সুরক্ষা এবং সহায়ক কর্মপরিবেশ সৃষ্টিতে নেয়া হয় নানা ব্যবস্থা। তবে এসবই সীমাবদ্ধ নিবন্ধিত পোশাক কারখানার বেলায়। অথচ দেশের বিভিন্ন এলাকায় ব্যক্তি উদ্যোগে অপেক্ষাকৃত কম পুঁজিতে গড়ে ওঠা অনিবন্ধিত পোশাক কারখানার অবস্থা এখনো বেহাল।

মূলত অভ্যন্তরীণ বাজার ও ভারতে পোশাক পাঠালেও এসব কারখানায় চুক্তি ভিত্তিতে তৈরি হয় নামীদামী ব্র্যান্ডের পোশাকও। খোদ রাজধানীতেই এমন গার্মেন্টস কারখানার খোঁজ পান বাংলাদেশে অবস্থানরত মেক্সিকান-ইতালিয়ান ফটোগ্রাফার ক্লডিও মন্টেসানো ক্যাসিয়াস।

এই আলোকচিত্রির ক্যামেরায় ধরা পড়ে পুরানো ঢাকার ‘অনানুষ্ঠিক’ বা ‘অনিবন্ধিত’ গার্মেন্টস কারখানার পরিস্থিতি আর শিশু শ্রমের চিত্র। তার ছবির ওপর ভিত্তি করে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বৃটিশ প্রভাবশালী গণমাধ্যম ডেইলি মেইল।

ক্লডিও’র ছবিতে উঠে এসেছে অনিরাপদ কারখানায় বাংলাদেশের শিশুদের অনিরাপদ ভবিষ্যতের প্রতিবিম্ব।

এই নোংরা আর ঘিঞ্জি পরিবেশেই ঘণ্টার পর ঘণ্টা কাজ করতে হয় ওদের

বিজ্ঞাপন

সপ্তাহে মাত্র আধা-দিনের ছুটি মেলে এই শিশুদের, স্কুলে যাওয়া তো দূরের কথা

নেই জরুরি বহির্গমন, আগুন নেভানোর কোনো আধুনিক সরঞ্জাম। বৈদ্যুতিক ব্যবস্থাও মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ।

এরমধ্যেই খেটে চলেছে ছোট ছোট শিশু-কিশোররা।

এই খুপরিগুলোর মধ্যেই কাজ, ঘুম, খাওয়া, গোসলে অভ্যস্ত ওরা।

বিজ্ঞাপন