চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাংলাদেশ জঙ্গি ও সন্ত্রাসমুক্ত হলেও এখনও চ্যালেঞ্জ রয়ে গেছে: প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশ জঙ্গি ও সন্ত্রাসমুক্ত হলেও এখনও চ্যালেঞ্জ রয়ে গেছে বলে মনে করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের ঘোষণা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কখনও যেনো ওই গোষ্ঠি তৎপর হতে না পারে। রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিরাপত্তা বিধানে ১৯৮৬ সালে যাত্রা শুরু করে রাষ্ট্রপতির নিরাপত্তা বাহিনী। যা পরবর্তী সময়ে বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী হিসেবে এসএসএফ হিসেবে নামকরণ হয়। সেনা, নৌ, বিমান বাহিনীসহ পুলিশ ও আনসারের চৌকস অফিসাররা এই বাহিনীতে দায়িত্ব পালন করেন।

দেশের প্রথম এই এলিট ফোর্সের ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আয়োজিত দরবারে যোগ দেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিজ্ঞাপন

এসএসএফ সদস্যদের আধুনিকায়নের পদক্ষেপগুলো তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তির কারণে বিশ্ব সন্ত্রাসের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এই বাহিনীর দক্ষতা বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

জঙ্গিবাদ দমনে সরকারের জিরো টলারেন্স নীতি আর আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকা সর্ম্পকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আর্ন্তজাতিক সন্ত্রাসবাদ জঙ্গিবাদ সৃষ্টি হয়েছে, নানা ধরনের সংঘাত বাড়ছে। বাংলাদেশকে আমরা এ সংঘাত থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করেছি। আমরা যখনি ক্ষমতায় এসেছি তখনই চেষ্ঠা করেছি বাংলাদেশে সন্ত্রাস এবং জঙ্গিবাদ যেন মাথা চাড়া দিয়ে না উঠতে পারে। জঙ্গিবাদ বিষয়ে আমাদের জিরো টলারেন্স নীতিতে আমাদের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী অত্যান্ত নিষ্ঠার সাথে কাজ করে গেছে বলেই আজ বাংলাদেশকে সন্ত্রাসমুক্ত জঙ্গিমুক্ত করতে পেরেছি।

বিজ্ঞাপন

এসএসএফ সদস্যদের দক্ষতা, নিষ্ঠা, কর্তব্যপরায়নতা ও আনুগত্যের প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার সাথে কাজ করতে গিয়ে কোনো কর্ম ঘন্টা ঠিক থাকে না, পাশাপাশি ক্লান্তিও চলে আসে। শুধু এটুকু বলব যে আমার লক্ষ্য একটাই যে, আমার প্রতিটি মিনিট কাজে লাগাতে চাই। আর দেশের উন্নয়নের জন্য এর ফলাফল দেশবাসি পাবেন। দেশের উন্নতি হোক সেটাই আমরা চাই।

এসএসএফকে কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়তে হলেও এ কারণে যেনো রাজনীতিকরা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে না পড়েন, সেদিকে দৃষ্টি দিতে বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

অনুষ্ঠানে এসএসএফ সদস্যদের সাথে কূশল বিনিময়ের পরে বিশাল আকৃতির কেক কাটেন প্রধানমন্ত্রী।

Bellow Post-Green View