চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাংলাদেশে ৩৪০ টাকায় ভ্যাকসিন বিক্রি করবে ভারত

সেরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা ভ্যাকসিন বাংলাদেশে প্রতি ডোজ ৩৪০ টাকায় বিক্রি করবে ভারত।

সেরাম প্রতি ডোজ করোনা ভ্যাকসিনের জন্য বাংলাদেশের কাছ থেকে চার ডলার করে নিচ্ছে। মুদ্রার মান এবং পরিবহন খরচসহ এই দাম ভারত সরকারকে দেয়া দামের চেয়ে কিছুটা বেশি। সেরাম ভারত সরকারের কাছ থেকে প্রতি ডোজের দাম নিয়েছে ২০০ রুপি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আজ মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রয়টার্স বলছে, সেরাম ইনস্টিটিউট ভারতে ২০০ রুপি বা ২.৭২ ডলারে (বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৩০.৯৪ টাকা) প্রতিডোজ করোনা ভ্যাকসিন বিক্রি করেছে। আর বাংলাদেশের কাছে প্রতিডোজ ভ্যাকসিন বিক্রি করবে ৪ ডলারে (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩৩৯.৬২ টাকা)।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ সরকারের এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়, চলতি মাসের ২৫ তারিখের মধ্যে সেরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের প্রথম চালান বাংলাদেশে পৌঁছাবে। আর আগামী মাসের প্রথমেই করোনা প্রতিরোধে ভ্যাকসিন কর্মসূচি শুরু করতে পারবে ঢাকা।

এ বিষয়ে কথা বলতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য সচিবের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তারা কেউই ফোন রিসিভ করেননি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ওষুধ কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনা ভ্যাকসিন কেনার জন্য বাংলাদেশ সরকার গত ১৩ ডিসেম্বর সেরাম ইনস্টিটিউট ও বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের সঙ্গে চুক্তি করে।

এর আগে গত নভেম্বরে করোনা ভ্যাকসিনের জন্য ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তি হয়েছিল। সেই চুক্তি অনুযায়ী, সেরাম প্রতি মাসে ৫০ লাখ করে ছয় মাসে বাংলাদেশকে তিন কোটি ডোজ করোনার ভ্যাকসিন দেবে।

বিজ্ঞাপন